ঢাকা, বুধবার, ১১ বৈশাখ ১৪৩১, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১৪ শাওয়াল ১৪৪৫

ক্রিকেট

সাকিবকে সিইও হিসেবে স্বাগত জানাবে বিসিবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৬, ২০২৩
সাকিবকে সিইও হিসেবে স্বাগত জানাবে বিসিবি ফাইল ছবি

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে নিয়ে বেশ কিছু মন্তব্য করেন সাকিব আল হাসান। এ নিয়ে শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা।

বিপিএলের অবস্থা ‘যা-তা’ বলে মনে করেন সাকিব। বিসিবির সদিচ্ছা নিয়েও প্রশ্ন তুলেন তিনি।

অনেক বিষয়ে সাকিবের সঙ্গে একমত পোষণ করেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। অনেকেই সাকিবের কথাগুলো যৌক্তিক মনে করেছেন। এ নিয়ে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। সাকিবকে নিজেদের পরিবারের অংশ বলেছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক।  

সাকিব সিইওর দায়িত্বে থাকলে দুই মাসেই সব ঠিক করতে পারবেন বলে দাবি করেন। এই কথার জবাবে বিপিএল গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান শেখ সোহেল বলেন, ‘আজকে আসলে আমি সাকিবকে স্বাগত জানাই, ধন্যবাদ। যদি ও বিপিএলের সিইও হিসেবে আসতে চায়, ও আগ্রহ প্রকাশ করেছে। আমরা গভর্নিং বডি থেকে ওকে স্বাগত জানাই। ও যদি চায়, আগামী বছর এসে সিইওর দায়িত্ব পালন করুক। ’ 

‘দেশের প্রধানমন্ত্রী মনে করেন এখন শেখ হাসিনা আছে। উনি ১৫ বছর কাজ করে জনগণকে খুশি করতে পারেনি। সিনেমা দেখে কিন্তু সবকিছু বাস্তবতা পূরণ হয়নি। এখন তো ও খেলতেছে। খেলা ছেড়ে আসতে পারবে না। সামনের বছর চলে আসুক। ’

সাকিবের মন্তব্য বিসিবির জন্য অস্বাচ্ছন্দ্যের কি না এমন প্রশ্নে মল্লিক বলেছেন, ‘এটা আসলে কোনো অস্বাচ্ছন্দ্য না। একটু আগেও সাকিব আমাদের সঙ্গে কথা বলছিল। মাশরাফির সঙ্গেও কথা বলছিলাম। দেখেন আমরা সবাই একই পরিবারের লোক। মত ভিন্ন থাকতেই পারে। ’

সাকিব ও মাশরাফির মতো বতর্মানে খেলছেন এমন তারকারা টুর্নামেন্টকে নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারেন কি না জানতে চাওয়া হলে মল্লিক বলেন, ‘কেউ যদি বলে বলতেই পারে। আপনি যে প্রশ্ন করেছেন যে হ্যাঁ; আমি তো দেখি সাকিব প্রিমিয়ার ডিভিশনের অনেক খেলা খেলে না। কিন্তু আজ পর্যন্ত বিপিএল তো মিস দেয় না। ’

‘আমি যদি পাল্টা প্রশ্ন করি, ও তো প্রিমিয়ার ডিভিশনের অনেক খেলা খেলে না। বলতেছে যে প্রিমিয়ার ডিভিশন থেকে এটা আমাদের খারাপ। কিন্তু আমি তো দেখি যে বিপিএলের কোনো এডিশনের কোনো খেলা ও বাদ দেয় না। কিন্তু প্রিমিয়ার ডিভিশন খেলে না। তো এটা আসলে কোনো বিতর্ক না। ’

এর আগে বিপিএল নিয়ে সাকিব বলেছিলেন, ‘আমাকে যদি (বিপিএলের) প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব দেয়া হয়, বেশিদিন লাগবে না। আমার ধারণা এক থেকে দুই মাস লাগবে সর্বোচ্চ; সবকিছু ঠিক করতে। দুই মাসও লাগার কথা না, দুই মাস অনেক দূরের কথা বলছি। ‘নায়ক’ সিনেমা দেখেছেন না? একদিনেও অনেক কিছু করা সম্ভব। যে করতে পারে সে সব করতে পারে। ’’

‘এই পুরো সবকিছু বাদ দিয়ে আবার ড্রাফট হবে, অকশন হবে, ফ্রি টাইমে বিপিএল হবে, সব আধুনিক টেকনোলজি থাকবে। ব্রডকাস্ট ভালো থাকবে। হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভেন্যু থাকবে। ’

বিপিএল নিয়ে বিসিবি সবসময়ই স্পন্সরের সংকটের কথা বলে। সাকিব অবশ্য বিশ্বাস করেন না টাকার অভাব। তিনি বলছেন, বাংলাদেশে ক্রিকেটের বাজার বেশ বড়; বিসিবি কর্তাদের স্বদিচ্ছার অভাবকেও দায়ী করেছেন সাকিব।

তিনি বলেন, ‘পারিনি নাকি চাইনি জানি না- বলাটা কষ্টকর (বড় করতে)। চাইলে না পারার কোনো কারণ আমি দেখি না। আমার মনে হয় আমরা সৎ মনে কখনও চাইনি কিছু করতে এখন পর্যন্ত। বাজেট নেই, কারণ আমরা বাজেট তৈরি করতে পারিনি। যদি তৈরি করতে পারতাম, মান অর্জন করতে পারতাম- অবশ্যই এই বাজেটটা অনেক বড় হওয়ার কথা ছিল। ’

‘গ্রামের এমন কোনো প্রত্যস্ত অঞ্চল দেখবেন না যেখানে ক্রিকেট খেলা হচ্ছে না। এমন তো না যে এটার জনপ্রিয়তা নেই। ১৬-২০ কোটি মানুষের একটা দেশে এতো পছন্দের একটা খেলা এটার বাজারটা থাকবে না; এটা খুবই দুঃখজনক। মানে আমি অন্তত বিশ্বাস করি না। ’

স্পন্সর সংকট নিয়ে সাকিব বলেন, ‘আমার ধারণা এটা মার্কেটিংয়ের জায়গা থেকে বড় একটি ব্যর্থতা। যে কারণে আমরা সেই রকম একটা বাজার তৈরি করতে পারিনি। (ডিআরএস নেই) বাজে সঙ্কট সম্ভবত। স্বদিচ্ছা থাকলে কোনো কিছু থেমে থাকার কারণ দেখি না। আমি তো কোনো কারণই দেখি না ডিআরএস না থাকার, তিন মাস আগে ড্রাফট বা অকশন না হওয়ার এবং দলগুলো এক মাস আগে ঠিক হবে না। ’

‘খেলোয়াড়রা এভেইলেবল থাকবে। এখন এক প্লেয়ার একদিন আসবে, দুইদিন পর চলে যাবে। কে কখন আসবে কখন যাবে কেউ জানে না। ড্রেস পায়নি প্লেয়াররা। আমি আপনাদের নিউজেই দেখেছি। একটা যা-তা অবস্থা। এর থেকে আমাদের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল) আরও ভালোভাবে হয়। কারণ তারা আগে থেকেই টিমটা গোছাতে পারে। আরও আগে থেকে জানে যে টিমটা কি হচ্ছে এবং তারা সেভাবে প্রস্তুতি নিতে পারে। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৬, ২০২২
এমএইচবি/আরইউ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।