ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৯ মহররম ১৪৪৬

ক্রিকেট

ভারতের বিপক্ষে লড়াই করার পুঁজি পেল যুক্তরাষ্ট্র

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২৭ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০২৪
ভারতের বিপক্ষে লড়াই করার পুঁজি পেল যুক্তরাষ্ট্র

প্রথম বলেই উইকেট হারিয়ে ফেললো যুক্তরাষ্ট্র, এক ওভারেই দুটি। তবুও শেষ অবধি ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা।

অ্যারন জোন্স, নীতিশ কুমার, স্টিভেন টেলরের গড়ে দেওয়া ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে শেষটা ভালো হয় তাদের। পেয়েছে লড়াই করার মতো সংগ্রহ।

বুধবার নাসাউ কাউন্টি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। শুরুতে ব্যাট করে ৮ উইকেট হারিয়ে ১১০ রান করেছে স্বাগতিকরা। এ মাঠে হওয়া আগের ম্যাচগুলো অনুযায়ী এই রান নিয়ে ভালোই লড়াই করতে পারার কথা যুক্তরাষ্ট্রের।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের একদম প্রথম বলেই উইকেট হারিয়ে ফেলে যুক্তরাষ্ট্র। আর্শদ্বীপ সিংয়ের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে যান জাহাঙ্গীর, টি-টোয়েন্টি ইতিহাসের পঞ্চম বোলার হিসেবে ইনিংসের প্রথম বলেই উইকেট পান তিনি। এই রেকর্ডের তালিকায় আছে বাংলাদেশের মাশরাফি বিন মুর্তজার নামও।

ওই ওভারের শেষ বলে আরও এক উইকেট তুলে নেন আর্শদ্বীপ। ৫ বলে ২ রান করে আন্দ্রেস গৌস ক্যাচ দেন হার্দিক পান্ডিয়ার হাতে। এরপর দলের হাল ধরেন স্টিভেন টেলর ও অ্যারন জোন্স। পাওয়ার প্লের বাকি ৫ ওভারে তেমন রান না করতে পারলেও উইকেট হারায়নি যুক্তরাষ্ট্র। ৬ ওভারে ২ উইকেটে করে ১৮ রান।

অষ্টম ওভারে গিয়ে ফের উইকেট হারায় যুক্তরাষ্ট্র। ২২ বলে ১১ রান করে অ্যারন জোন্স ক্যাচ দেন হার্দিক পান্ডিয়ার বলে। এর মধ্যে স্টিভেন টেলর ধীরে ধীরে হাত খোলেন। কিন্তু তিনিও বেশিক্ষণ উইকেটে টিকে থাকতে পারেননি।

হার্দিক পান্ডিয়াই ফেরান তাকে। আগের বলে ছক্কা মেরে পরের বলে বোল্ড হয়ে যান। এর আগে ৩০ বলে ২৪ রান করেন টেলর। তার বিদায়ের পর নীতিশ কুমার দলের রান বাড়ানোর চেষ্টা করেন। ২৩ বলে ২৭ রান করার পর তাকে আউট করেন আর্শদ্বীপ সিং। তার বলে দুর্দান্ত এক ক্যাচ নেন হার্দিক পান্ডিয়া।  

এরপর কয়েকজন ব্যাটারের ছোট ছোট ইনিংসে দলকে লড়াই করার মতো পুঁজি এনে দেন। কোরি অ্যান্ডারসন ১২ বলে ১৪ ও হারম্রিত সিং ১০ বলে ১০ রান করেন। ৪ ওভারে স্রেফ ৯ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন আর্শ্বদ্বীপ সিং। তার তো বটেই, ভারতের কোনো বোলারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সেরা বোলিং ফিগার এটি।

বাংলাদেশ সময়:২২২৬ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০২৪
এমএইচবি/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।