ঢাকা, সোমবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২ শাওয়াল ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

স্ত্রী-সন্তানকে হত্যা: ২৭ বছর পর স্বামীর যাবজ্জীবন 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০২৩
স্ত্রী-সন্তানকে হত্যা: ২৭ বছর পর স্বামীর যাবজ্জীবন 

চট্টগ্রাম: নগরের পাঁচলাইশ থানার মরাদপুর এলাকায় ১৯৯৫ সালে স্ত্রী ও মেয়েকে হত্যার দায়ে স্বামী আবুল কালাম আজাদকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার (১১ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্পেশাল জজ মুন্সী আব্দুল মজিদের আদালত এই রায় দেন।

 

সাজাপ্রাপ্ত আসামি আবুল কালাম আজাদ কক্সবাজার জেলার মহেশখালীর রাজঘাটা এলাকার ইয়াকুব আলীর ছেলে ।  

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো. মূসা বাংলানিউজকে বলেন, স্ত্রী কামরুন নাহার সুমনা ও মেয়ে কহিনুরকে হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত আসামি আবুল কালাম আজাদকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও ৫ বছর সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন।

রায়ের সময় আসামি আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।  

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ১৯৯৫ সালের ৩০ মে নগরের পাঁচলাইশ থানার মরাদপুরের একটি ভবনের নিচতলায় স্ত্রী কামরুন নাহার সুমনা ও মেয়ে কহিনুরকে হত্যা করে পালিয়ে যায় স্বামী আবুল কালাম আজাদ। এ ঘটনায় সুমনার বাবা মোস্তাফিজুর রহমান বাদী হয়ে নগরের পাঁচলাইশ থানায় মামলা করেন। ১৯৯৬ সালের ১৭ জুন এ মামলার একমাত্র আসামি আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে ৩০২ ধারায় অভিযোগ গঠন করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০২৩
এমআই/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।