ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ শাবান ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

যান সৃষ্টি করছে ভয়াবহ জট

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০২৩
যান সৃষ্টি করছে ভয়াবহ জট ...

চট্টগ্রাম: নগরজুড়ে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড, সরু রাস্তা ও ফুটপাত দখল, সেইসঙ্গে বিপণি বিতান-শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও হাসপাতালে পার্কিং সংকটের কারণে বাড়ছে যানজট। বেড়েছে নিবন্ধনহীন গাড়ির সংখ্যাও।

এছাড়া শহরের তিনটি প্রবেশমুখে বাস টার্মিনাল না থাকা এবং বন্দরকেন্দ্রিক যানজটে জনজীবনে নেমে আসছে দুর্ভোগ। সিএমপির ট্রাফিক বিভাগ সীমিত জনবল দিয়ে কাজ করছে সড়কে।

তবুও নিরসন করা যাচ্ছে না যানজট।  

নগরীতে জনসংখ্যা ও গাড়ি চলাচল উল্লেখ্যযোগ্য হারে বাড়লেও ১০ বছর আগের জনবল দিয়েই চলছে সিএমপির ট্রাফিক বিভাগ। বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে নগরের আসকারদিঘীর পাড় সড়কে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করতে দেখা গেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) ট্রাফিক দক্ষিণের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মো. রইছ উদ্দিনকে।  

বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) নগরের চকবাজার, তেলিপট্টি মোড়, জামালখান মোড়ে দুপুরে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে ভোগান্তিতে পড়েন জরুরি কাজে যাতায়াতকারীরা। যানজটের কারণে অনেকে হেঁটে গন্তব্যস্থলে রওনা হন।  

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নিলয় নীল বাংলানিউজকে বলেন, সাধারণত চকবাজার এলাকায় এত বেশি যানজট থাকে না। তবে কয়েকদিন ধরে সড়কে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। বছরের প্রথম মাসে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাস শুরু হওয়ায় এ অবস্থা তৈরি হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার ব্যক্তিগত গাড়ি সড়কের পাশেই পার্কিং করে রাখা হচ্ছে। আজ গুলজার মোড় থেকে চট্টেশ্বরী রোডে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হোস্টেলের গেইট পর্যন্ত ছাড়িয়ে গেছে যানজট।  

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, পর্যাপ্ত বাস টার্মিনালের অভাব, ট্রাফিক আইন না মানা, অবৈধভাবে ফুটপাথ দখল, উল্টো পথে গাড়ি চালানোসহ নানাবিধ কারণে দিন দিন এ সমস্যা আরও প্রকট আকার ধারণ করছে। মূলত রাস্তার তুলনায় যানবাহনের আধিক্য ও চালকদের অসচেতনতাকেই যানজটের প্রধান কারণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এর পাশাপাশি ট্রাফিক নিয়ম না মানা, ফুটপাথ দখল, রাস্তার অব্যবহারও যানজটের অন্যতম কারণ।  

নিউ মার্কেট মোড় থেকে জুবলী রোড এলাকায় রেয়াজউদ্দিন বাজার, পৌর জহুর হকার্স মার্কেট, তামাকমুন্ডি লেইন এবং শাহ আমানত সিটি করপোরেশন মার্কেট, গোলাম রসুল মার্কেট ও পাইকারী সবজি বাজার এলাকায় যানজট লেগেই থাকে সবসময়। ফুটপাত হকারদের দখলে থাকায় যানবাহন থেকে যাত্রী এবং মালামাল ওঠানামা সবকিছুই চলে সড়কের ওপর।

সিএমপি’র ট্রাফিক দক্ষিণের এডিসি মো. রইছ উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, ‘রাস্তায় যানজট নিরসনের কাজ আমাদের মাঝে মধ্যে করতে হয়। তদারকির কাজটা আমাদের মূল দায়িত্ব। আমাদের অধীনস্থ কর্মকর্তারা রাস্তায় ঠিকভাবে কাজ করছে কি-না এবং ক্ষেত্রবিশেষে যানজট নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে নিজেরাই রাস্তায় নেমে যাই। এটা আমাদের নিয়মিত ডিউটির অংশ’।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০২৩
এমআই/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।