ঢাকা, সোমবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

কালের কণ্ঠ লেখনী শক্তিতে পাঠকের হৃদয়ে স্থান করেছে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২২
কালের কণ্ঠ লেখনী শক্তিতে পাঠকের হৃদয়ে স্থান করেছে কালের কণ্ঠের যুগপূর্তির কেক কাটেন মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী

চট্টগ্রাম: ফুলেল শুভেচ্ছা, কথামালা ও আনন্দ আয়োজনের মধ্য দিয়ে কালের কণ্ঠের যুগপূর্তি উদযাপিত হয়েছে চট্টগ্রামে।  

সোমবার (১০ জানুয়ারি) প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম ব্যুরো অফিস চসিক মেয়র, রাজনীতিবিদ, বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে মুখরিত হয়ে ওঠে।

দুপুরে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটা হয়। শহীদ সাইফুদ্দিন খালেদ সড়কে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়।
 

কালের কণ্ঠকে শুভেচ্ছা জানাতে আসা ব্যক্তিবর্গের অভিমত কালের কণ্ঠের অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাকবে এবং জনমানসের সঙ্গে থেকে দেশ ও জাতির উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে অনন্য ভূমিকা রাখবে। দিনভর অফিসে শুভেচ্ছা জানাতে আসা বিভিন্ন সংগঠনের কর্মকর্তারা কালের কণ্ঠের শুভ কামনা করে নিজেদের অনুভূতি জানান। মিষ্টিমুখের পাশাপাশি বক্তারা কালের কণ্ঠ মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণ ও সমাজের ত্রুটি-বিচ্যুতি তুলে ধরার সঙ্গে বস্তুনিষ্ঠ সত্যকথনকে নিরলসভাবে প্রকাশ করে যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।  

শিক্ষার্থীদের টিকাদানকে কেন্দ্র করে সকাল থেকে নগরের বিভিন্ন সড়কে তীব্র যানজট ছিল। যানজট উপেক্ষা করে বিভিন্ন এলাকা থেকে শুভাকাঙ্ক্ষীরা সকাল ১০টার পর থেকে ফুল নিয়ে কালের কণ্ঠ চট্টগ্রাম ব্যুরো অফিসে আসতে শুরু করেন। প্রথমে মেয়র ও চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী, নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। অনেকে আসেন ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাতে।  

দুপুরে কেক কাটার পর চসিক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, কালের কণ্ঠ আমি নিজেও পড়ি। কালের কণ্ঠের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হলো এ পত্রিকা কোনো সময় আজগুবি ও মিথ্যা সংবাদ পরিবেশ করতে দেখিনি। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশ করে আসছে এ পত্রিকা। আংশিক নয়, পুরো সত্য স্লোগান নিয়ে ১২ বছর আগে জয়যাত্রা শুরু করেছিল। সে স্লোগানের বাস্তবায়ন আমরা দেখতে পাই। কালের কণ্ঠ লেখনী শক্তির মাধ্যমে পাঠকের হৃদয়ে বড় স্থান করে নিয়েছে। এ পত্রিকা পাঠক সমাজে সমাদৃত। দেশ স্বাধীন হওয়ার আগে-পরে কিছু পত্রিকা সাধারণ মানুষের কাছে আসে। তার মধ্যে বর্তমানে বাংলাদেশে যে কটি পত্রিকা আছে তার মধ্যে অন্যতম কালের কণ্ঠ। কারণ কালের কণ্ঠ সাধারণ মানুষের কথা বলে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের কথা বলে। কালের কণ্ঠ কালের গর্ভে হারিয়ে যাবে না, লেখনীর শক্তির মাধ্যমে টিকে থাকবে। এটাই আমাদের প্রত্যাশা।  

যুগপূর্তিতে অফিসে এসে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন চসিকের প্যানেল মেয়র ও বাগমনিরাম ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. গিয়াসউদ্দিন, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি আলী আব্বাস, বাংলানিউজ২৪.কমের উপসম্পাদক ও বিএফইউজের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব তপন চক্রবর্তী, বাংলাদেশ প্রতিদিন চট্টগ্রামের ব্যুরো চিফ ও বিএফইউজের সাবেক সহ-সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, ডেইলি সানের ব্যুরো চিফ নুরউদ্দিন আলমগীর, বিজিএমইএর পক্ষ থেকে অতিরিক্ত সচিব আবদুল আজিজ, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য ও নগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রায়হান ইউসুফ, ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত, শামীম করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ ইসমাইল, শুভ সংঘ বৃহত্তর চট্টগ্রামের সভাপতি রিয়াজুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এবিএম ইকবাল হায়দার ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসুদ নাসিম, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিনিধি ইউনিটের চিফ সাইদুল ইসলাম, সাংবাদিক বিপ্লব পার্থ প্রমুখ। সংক্ষিপ্ত আলোচনা পর্ব উপস্থাপন করেন কালের কণ্ঠ চট্টগ্রামের ব্যুরো প্রধান মুস্তফা নঈম।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২২
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa