ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ বৈশাখ ১৪৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

স্পেশাল ইকোনমিক জোন ও হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগ করুন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৯, ২০২৩
স্পেশাল ইকোনমিক জোন ও হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগ করুন

ঢাকা: যুক্তরাজ্যে বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশের স্পেশাল ইকোনমিক জোন ও হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।  

তিনি বলেন, বাংলাদেশ এখন বিনিয়োগের জন্য সবচেয়ে লাভজনক স্থান।

বাংলাদেশে বিনিয়োগ এখন অনেক সহজ করা হয়েছে। বৈদেশিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ বেশ কিছু সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে।

সোমবার (৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে ঢাকায় সফররত যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ বিষয় বাণিজ্য দূত রুশানারা আলীর সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তিনি এ আহ্বান জানান।  

এ সময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষসহ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র কর্মকর্তা ও ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটার্টন ডিকসনসহ ডেলিগেশনের সমস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের ঐতিহাসিক সম্পর্ক। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কারামুক্ত হয়ে পাকিস্তান থেকে স্বাধীন বাংলাদেশে ফেরার পথে যুক্তরাজ্যে যাত্রাবিরতি করেন। যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের বন্ধু রাষ্ট্র। যুক্তরাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশের বাণিজ্যিক ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। বর্তমানে বাংলাদেশে দুই শতাধিক ব্রিটিশ কোম্পানি প্রায় ২.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলার কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। অনেকগুলোর কাজ এখন শেষ পর্যায়ে। এছাড়া ৩৩টি হাই-টেক পার্কের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। এগুলোতে বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে এনার্জি, রেলওয়ে, টেলি-কমিউনিকেশন, ইনফরমেশন টেকনোরজি, ফার্মাসিটিকেল, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং, সেবা, শিক্ষা ও তৈরি পোশাক খাতে বিনিয়োগের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে। বাংলাদেশের অনেক ছেলে-মেয়ে বৃটেনে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করছে। এসব বৃটিশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে থাকলে ছেলে-মেয়েরা কম খরচে উন্নত শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পাবে। বৃটিশ বিনিয়োগকারীরা এ সুযোগ গ্রহণ করতে পারেন। বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার বিধিবিধান মেনে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে বাংলাদেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে।

সফররত বাণিজ্য দূত রুশানারা আলী বলেন, বৃটেন বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে চায়। এক্ষেত্রে জটিলতা দূর করলে বৃটিশ বিনিয়োগ বাংলাদেশে বাড়বে। বৃটিশ অনেক কোম্পানি বাংলাদেশে সুনামের সঙ্গে কাজ করছে। সেবা ও শিক্ষা খাতে বিনিয়োগ করতে অনেক বৃটিশ বিনিয়োগকারী আগ্রহী। বাংলাদেশের স্পেশাল ইকোনমিক জোন বিদেশি বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি করেছে। বৃটেনের বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশের বিভিন্ন সেক্টরে বিনিয়োগে আগ্রহী। উভয় দেশের বাণিজ্য বাড়লে কার্গো জাহাজ চলাচলের সুযোগ সৃষ্টি হবে।  

বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার প্রশংসা করে তিনি বলেন, মেড ইন বাংলাদেশ বৃটেনে জনপ্রিয় ব্র্যান্ড।

রুশানারা আলী বাংলাদেশের সেবা, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিমান পরিবহন খাতে বৃটিশ বিনিয়োগকারীদের আগ্রহের কথা উল্লেখ করেন। তিনি মেধাস্বত্বের সুরক্ষা নিশ্চিত করার ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেন।                                                                                                    

বাংলাদেশ সময়: ২০৪২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৯, ২০২২
জিসিজি/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad