ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ শাবান ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

বাংলাদেশের সঙ্গে পারস্পরিক বাণিজ্য বাড়াতে চায় মেক্সিকো

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০২৩
বাংলাদেশের সঙ্গে পারস্পরিক বাণিজ্য বাড়াতে চায় মেক্সিকো

ঢাকা: বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও বাড়াতে চায় ল্যাটিন আমেরিকার দেশ মেক্সিকো। অটোমোবাইল, ফার্মাসিউটিক্যাল, কেমিক্যাল এবং ফিনটেক খাতে বড় সম্ভাবনা দেখছে উভয় দেশ।

সোমবার (৩০ জানুয়ারি) সকালে দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন দি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবুর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ভারতের নয়া দিল্লীতে অবস্থিত মেক্সিকো দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত ফেডেরিকো সালাস লৎফে।

এ সময় তিনি উভয় দেশের মধ্যে বাণিজ্য বৈচিত্রকরণের ওপর গুরুত্ব দেন।

মেক্সিকোর রাষ্ট্রদূত বলেন, বাণিজ্য সম্প্রসারণ এবং বৈচিত্রকরণের মাধ্যমে বাংলাদেশ-মেক্সিকো অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও বাড়ানোর সুযোগ রয়েছে। অটোমোবাইল, ফার্মাসিউটিক্যাল, কেমিক্যাল, ফিনটেক প্রভৃতি খাতে বড় সম্ভাবনা দেখছে মেক্সিকো।

মেক্সিকোর রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, বৈশ্বিক অটোমোবাইল বাজারের অন্যতম যোগানদাতা হলো মেক্সিকো। অটোমোবাইল শিল্পে মেক্সিকোর অভিজ্ঞতা এবং প্রযুক্তি বাংলাদেশের সঙ্গে বিনিময়ে আগ্রহী আমরা। আশাকরি এটি হবে একটি ভালো উদ্যোগ।

এ সময় বাংলাদেশী উদ্যোক্তাদেরও মেক্সিকোতে ব্যবসা স্থাপনের আহ্বান জানান ফেডেরিকো সালাস লৎফে।

এফবিসিসিআই’র ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজন হতে যাওয়া বাংলাদেশ বিজনেস সামিটের বিষয়ে মেক্সিকোর প্রতিনিধি দলকে অবহিত করেন সংগঠনটির সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু। উক্ত আয়োজনে মেক্সিকোর ব্যবসায়ীদের সক্রিয় অংশগ্রহণ কামনা করে তিনি বলেন, তিনদিনব্যাপী সামিটে একাধিক প্ল্যানারি সেশন অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্ভাবনা বিষয়ে আলোকপাত হবে। এসব সেশনে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন কোম্পানির প্রধান নির্বাহী, ব্যবসায়ী নেতা, বাজার বিশ্লেষকসহ বিভিন্ন দেশ এবং সংস্থার শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন।

এ সময় মেক্সিকোর ব্যবসায়ী প্রতিনিধি এবং সরকারি কর্মকর্তাদেরও প্ল্যানারি সেশনে অংশ নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।

বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণে মেক্সিকোর ব্যবসায়ীদের এফবিসিসিআই সব ধরণের সহযোগিতা করবে বলেও জানান মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু।

এ বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই’র পরিচালক সৈয়দ সাদাত আলমাস কবীর, এস. এম. শফিউজ্জামান, আবু হোসেন ভূঁইয়া রানু, মহাসচিব মোহাম্মদ মাহফুজুল হকসহ প্রতিনিধি দলের অন্যান্য সদস্যরা।

এদিকে, বিকেলে এফবিসিসিআই কার্যালয়ে ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন জাপানের জনপ্রিয় ও বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম ব্যাংক মিতস্যুবিশি ইউএফজি ফাইন্যান্সিয়াল গ্রুপ বা এমইউএফজি ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে গঠিত একটি বিশেষ প্রতিনিধি দল। ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের বৈদেশিক বিনিয়োগ বিভাগের প্রধান গৌরব ভাগাতের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলে আরও উপস্থিত ছিলেন এমইউএফজি সিঙ্গাপুর শাখার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এন্ড্রিউ রোথারি, মার্টিন ফ্রান্সিসসহ অন্যরা।

এ সময় বাংলাদেশের অর্থনীতির সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে আগামী দিনগুলোতে বাংলাদেশে আরও বেশি কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেন প্রতিনিধি দল।

বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় খাতগুলো উল্লেখ করার পাশাপাশি এসব খাতে বিনিয়োগের জন্য এমইউএফজি ব্যাংক কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান এফবিসিসিআই এর ব্যবসায়িক নেতারা। এ সময় বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রার সহযাত্রী হতে এ দেশে এমইউএফজি ব্যাংকের শাখা চালু করার আহ্বান জানান তারা।

এফবিসিসিআইর সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবুর নেতৃত্বে বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি মো. আমিন হেলালী, পরিচালক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন, শমী কায়সার, ড. নাদিয়া বিনতে আমীন, সৈয়দ সাদাত আলমাস কবীর, আবুল কাসেম খান, আবু হোসেন ভুঁইয়া (রানু) ও বারভিডা’র মহাসচিব মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০২৩
এমকে/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।