ঢাকা, সোমবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২ শাওয়াল ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

আইসিসিবিতে টেক্সটাইল ও গার্মেন্টস মেশিনারি প্রদর্শনী শুরু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২৪
আইসিসিবিতে টেক্সটাইল ও গার্মেন্টস মেশিনারি প্রদর্শনী শুরু আইসিসিবি-তে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল টেক্সটাইল অ্যান্ড গার্মেন্টস মেশিনারি এক্সিবিশন শুরু হয়েছে: ছবি: রাজীন চৌধুরী

ঢাকা: বাংলাদেশের পোশাক ও বস্ত্র খাতের মেশিনারিজের সবচেয়ে বড় আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী ‘ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল টেক্সটাইল অ্যান্ড গার্মেন্টস মেশিনারি এক্সিবিশন (ডিটিজি ২০২৪)’ শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) চার দিনব্যাপী এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

ডিটিজি’র ১৮তম সংস্করণটির আয়োজন করেছে বস্ত্রকল মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশন (বিটিএমএ)।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সালমান এফ রহমান বলেন, আমি বিটিএমএ’কে নিজের পরিবার হিসেবে মনে করি। কারণ এক সময় আমি এই পরিবারেরই সদস্য ছিলাম। এখন যে নতুন মেশিন বাজারে আসছে সেগুলোতে জ্বালানি কম প্রয়োজন হয়। পাশাপাশি ডায়িংয়ের ক্ষেত্রে এসব নতুন প্রযুক্তির মেশিনে পরিবেশ দূষণ অনেকটা কম হয়। পাশাপাশি অর্ডারের ক্ষেত্রে বায়ারদের নির্দেশনা থাকে যাথে এগুলো গ্রিন প্রোডাক্ট বা পরিবেশবান্ধবভাবে তৈরি করা হয়। আর এই কারণেই গার্মেন্টস সেক্টরের মেশিনারিজগুলো আমাদের প্রতিনিয়ত আপডেট করতে হয়, তা না হলে প্রতিযোগিতার বাজারে টিকে থাকা কষ্ট হয়ে যায়।

তিনি বলেন, আগে গার্মেন্টস সেক্টরের মেশিনারিজগুলো কেনার জন্য মালিকদের দেশের বাইরে এক্সিবিশিনগুলোতে যেতে হতো। কিন্তু এখন আর তা করতে হয় না। দেশেই বড় বড় প্রদর্শনী হচ্ছে। এসব এক্সিবিশন যারা আয়োজন করছেন তাদের অনেক ধন্যবাদ জানাই।

আন্তর্জাতিক বাজারে গার্মেন্টস শিল্পের ক্ষেত্রে নিটিং সেক্টরের ভ্যালু অ্যাডিশন অনেক হলেও ওভেন সেক্টরে অনেক কম হচ্ছে উল্লেখ করে সালমান এফ রহমান বলেন, বর্তমানে ওভেন সেক্টরে নতুন করে ভ্যালু অ্যাডিশনের ক্ষেত্রে যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। যে কারণে অনেক নতুন উদ্যোক্তা এই সেক্টরে বিনিয়োগ করছেন।


ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল টেক্সটাইল অ্যান্ড গার্মেন্টস মেশিনারি এক্সিবিশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সালমান এফ রহমান

চলতি বছর ব্যবসায়ীদের জন্য অনেক বেশি চেলেঞ্জিং হবে উল্লেখ করে সালমান এফ রহমান বলেন, আমি গত বছর ব্যবসায়ীদের বলে রেখেছিলাম, আসছে ২০২৪ সাল ব্যবসায়ীদের জন্য সবচেয়ে কঠিন একটি বছর হবে। তবে আমরা আশা করছি, এই চ্যালেঞ্জ আমরা মোকাবিলা করতে পারব। কারণ, বাংলাদেশের ওপর যত রকমের সমস্যা এসেছে, ব্যবসায়ীরা সেগুলোকে সুন্দরভাবে মোকাবিলা করতে পেরেছেন। আমার মতে, একটি অনুকূল পরিবেশ থাকলে ভালোভাবে ব্যবসায়ীরা ব্যবসা করতে পারেন। যেই অনুকূল পরিবেশ আওয়ামী লীগ সরকার গত ১৫ বছরে তৈরি করেছে। যার ফলে বেসরকারি খাতে ৬ শতাংশের মতো গ্রোথ হয়েছে। আমি মনে করি, অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি হচ্ছে বেসরকারি খাত।

ইউএস ফেডারেল রিজার্ভ ইন্টারেস্ট বাড়ানোর ফলে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বাংলাদেশসহ বেশকিছু দেশকে নানামুখী সমস্যায় পড়তে হয়েছে উল্লেখ করে সালমান এফ রহমান বলেন, করোনা ও রাশিয়া ইউক্রেনে যুদ্ধের পর হঠাৎই ইউএস ফেডারেল রেট বাড়তে থাকল, যার পর ডলার খুব বেশি শক্তিশালী হয়ে উঠল। সে ক্ষেত্রে ডলারের এক প্রকার সংকট দেখা দিল। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি হিসেবে গ্যাসের যে মূল্য, তার থেকে প্রায় ৫০ ভাগ সাবসিডিতে এই দেশে জনগণকে গ্যাস দেওয়া হচ্ছে। বিদ্যুৎ খাতেও একই অবস্থা। বিশ্ববাজারের তুলনায় বাংলাদেশে গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম এখনো সবচেয়ে কম।

টেক্সটাইল এবং পোশাক পণ্যের আন্তর্জাতিক ক্রেতারা এখন বাংলাদেশকে তাদের প্রধান সোর্সিং গন্তব্য হিসেবে ভাবতে শুরু করেছেন এমন মন্তব্য করে বিটিএমএ’র প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আলী খোকন বলেন, এই প্রদর্শনীতে উদ্যোক্তারা বিভিন্ন ধরনের আধুনিক যন্ত্রপাতি ও প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে পারবেন। এই প্রদর্শনীতে যে সকল মেশিন আছে, সেগুলো টেক্সটাইল শিল্পের উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে। যেখানে জ্বালানি খরচ অনেকটা কমে যাবে এবং প্রতিযোগিতার দিক থেকে এগিয়ে রাখবে। আমি মনে করি, প্রদর্শনীটি আমাদের স্থানীয় টেক্সটাইল এবং গার্মেন্টস উদ্যোক্তাদের জন্য একটি অনন্য সুযোগ দেবে।

বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া এই প্রদর্শনী চলবে আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। দর্শনার্থীদের জন্য প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে শুরু হয়ে রাত ৮টা পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকবে এ প্রদর্শনী। ১ হাজার ৬০০টিরও বেশি বুথ নিয়ে এ বছর ৩৩টি দেশের ১ হাজার ১০০ জন প্রদর্শক তাদের পণ্যগুলি প্রদর্শন করেছেন। গত বছর ১ হাজার ৬০০টি বুথসহ ৩৬টি দেশের ১ হাজার ২০০ জন প্রদর্শক ডিটিজিতে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. মাহবুবুল আলম, বিকেএমইএ নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, ইয়র্কার্স ট্রেড অ্যান্ড মার্কেটিং সার্ভিস কোম্পানি লিমিটেডের প্রেসিডেন্ট জুডি ওয়াং, এফবিসিসিআই-এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আমিন হেলালী প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২৪
ইএসএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।