ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ শাবান ১৪৪৫

শিক্ষা

কাগজসহ শিক্ষা উপকরণের দাম কমানোর দাবি ছাত্র ফেডারেশনের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২৩
কাগজসহ শিক্ষা উপকরণের দাম কমানোর দাবি ছাত্র ফেডারেশনের ছাত্র ফেডারেশন

বরিশাল: বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বরিশালে আলোচনা সভা ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় বরিশাল জেলা কার্যালয়ে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন বরিশাল জেলা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ জাবেরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সাকিবুল ইসলাম সাফিনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন গণসংতি আন্দোলনের জেলা আহ্বায়ক দেওয়ান আবদুর রশিদ নীলু, সদস্য সচিব আরিফুর রহমান মিরাজ ও সদস্য নজরুল ইসলাম খান প্রমুখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ছাত্র ফেডারেশনের জেলা কমিটির সহ-সভাপতি হাছিব আহমেদ, সহ- সম্পাদক শারমিন শ্রুতি, সাংগঠনিক সম্পাদক রাইদুল ইসলাম সাকিব, বিশ্ববিদ্যালয় শাখার আহ্বায়ক জামান কবির প্রমুখ।

সভায় সূচনা বক্তব্যে নেতারা দলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মী-সংগঠক-শুভানুধ্যায়ী-সমর্থকসহ বাংলাদেশের সর্বস্তরের জনগণকে রক্তিম অভিবাদন জানান।

তারা বলেন, ‘মহাকালে মানুষের মুক্তির সংগ্রামের ঐতিহাসিক ধারাতেই আমাদের সংগ্রাম বহমান। আমাদের সংগঠনের ৩৮ বছরের সংগ্রামী যাত্রার অতীতের সংগ্রাম, অর্জন ও ব্যর্থতার খতিয়ান জনগণের কাছে তোলা আছে। মানুষের মুক্তির লড়াইয়ের কাফেলায় আমাদের সংগ্রাম বিষয়ে ইতিহাস রায় দেবে। জনগণের কাছেই আমাদের জবাবদিহিতা ও মূল্যায়নের খাতা খোলা কারণ আমাদের ঘোষিত নীতি হলো ‘জনগণের বৃহত্তর স্বার্থের বাইরে আমাদের নিজস্ব কোনো স্বার্থ নেই।

সরকারের সমালোচনা করে তারা বলেন, সরকারের অদক্ষতা-দুর্নীতির কারণে আজ সব কিছুর দাম বেড়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বেড়েছে, কাগজসহ শিক্ষা উপকরণের দাম বেড়েছে দ্বিগুণ। আমরা অবিলম্বে সরকারকে কাগজসহ শিক্ষা উপকরণের দাম কমানোর জন্য দাবি জানাচ্ছি।

ছাত্র ফেডারেশন নেতারা বলেন, বর্তমান সরকার কাছের লোকদের বিপুল পরিমাণ অর্থ পাচারের সুযোগ দিয়ে দেশের অর্থনীতিকে সংকটের মুখে ফেলেছে, আর সব দায় চাপাচ্ছে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের উপরে। আমরা বলতে চাই, বর্তমান সরকারের চুরি-দুর্নীতিই আমাদের এই অর্থনৈতিক সংকটের মুখে ফেলেছে। নতুন বছরে বই উৎসব করে শিক্ষার্থীদের মাঝে নিম্নমানের ভুলে ভরা বই সরবরাহ করেছে সরকার। বই উৎসবে এনে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীর হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে দ্বিতীয় শ্রেণির বই। আর আমাদের শিক্ষামন্ত্রী প্রকাশ্যে বলছেন, উন্নত মানের কাগজে (সাদা কাগজে) বই পড়লে নাকি শিক্ষার্থীদের চোখে সমস্যা হয়। আমরা তার এই বক্তব্যের নিন্দা জানাই। শিক্ষার্থীদের হাতে যথাসময়ে মানসম্মত বই তুলে দিতে না পারার ব্যর্থতার দায় নিয়ে অবিলম্বে শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত।

তারা বলেন, কাগজ ও শিক্ষা উপকরণের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। আন্তজার্তিক বাজারের চেয়ে বেশি দামে দেশে কাগজ বিক্রি হচ্ছে, শিক্ষার্থীদের খরচ বেড়েছে। কাগজের দাম বাড়ায় প্রকাশনী সংস্থাগুলোও পড়েছে বিপাকে। এমুহূর্তে কাগজের দাম কমাতে সরকারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাই। সরকার মহাসমরোহে মেট্রোরেলের একাংশ উদ্বোধন করেছে, কিন্তু তাতে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়ার ব্যবস্থা করেনি। আমরা মেট্রোরেলে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া কার্যকরের দাবি জানাই। ক্যাম্পাসগুলোতে শিক্ষার্থীরা প্রতিনিয়ত  গণরুম-গেস্টরুমে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। আমরা শিক্ষার্থীদের জন্য ভয়মুক্ত নিরাপদ ক্যাম্পাসের দাবিতে সামনে ছাত্র সমাজকে ঐক্যবদ্ধ করে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তুলব।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৩ ঘণ্টা, জানুয়া‌রি ১০, ২০২৩
এমএস/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।