ঢাকা, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৫ মে ২০২৪, ১৬ জিলকদ ১৪৪৫

শিক্ষা

খুবিতে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা করা হচ্ছে: উপাচার্য

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০২৩
খুবিতে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা করা হচ্ছে: উপাচার্য

খুলনা: প্রতিটি ভবন ও ল্যাব সুরক্ষায় অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন।

খুবির ইলেক্ট্রনিক্স অ্যান্ড কমিউনিকেশন্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইসিই) ডিসিপ্লিনের উদ্যোগে ড. সত্যেন্দ্রনাথ বসু একাডেমিক ভবনের সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের ক্লাসরুমে অগ্নিনির্বাপণ ও উদ্ধার সংক্রান্ত এ প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়।



বুধবার (১১ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় প্রশিক্ষণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন।

তিনি বলেন, সৃষ্টির শুরুতে এবং সভ্যতার বিকাশে আগুন ছিল। আবার এই সভ্যতার অনেক পর্যায়ে ধ্বংস ও বিপর্যয়ের কারণও এই আগুন দিয়ে সংঘটিত হয়েছে। সভ্যতা ও প্রযুক্তির বর্তমান যুগে নানাভাবে ও নানা মাধ্যমে শক্তি হিসেবে আমরা বিদ্যুৎ ও গ্যাসসহ বিভিন্ন অনুসঙ্গ ব্যবহার করি। সচেতনতার অভাবে অনেক বড় বড় দুর্ঘটনা দেখতে পাই। জীবন ও সম্পদ ধ্বংস হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো উচ্চশিক্ষা ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করার বিষয়টি জরুরি। কারণ, এখানে যে গবেষণা হয়, ল্যাবে যে মূল্যবান যন্ত্রপাতি থাকে, তথ্য-উপাত্ত থাকে তা একবার নষ্ট হলে অমূল্য ক্ষতি হয়। যা বহুবছরেও পুনরুদ্ধার সম্ভব হয় না।

খুবি কর্তৃপক্ষের উদ্যোগ ও অর্থবরাদ্দ সত্ত্বেও সবক্ষেত্রে অগ্নি থেকে সুরক্ষার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা এখনও গড়ে ওঠেনি। এটা আমাদের এক ধরনের ব্যর্থতা হলেও এর থেকে শিক্ষা নিয়ে গোটা ক্যাম্পাসে অগ্নিনিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে।

তিনি বলেন, খুবির প্রতিটি ভবন ও ল্যাবরেটরির সুরক্ষায় অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে ইতোমধ্যে একটি কমিটি গঠিত হয়েছে। শিগগিরই তা পুনর্গঠন করা হবে।

সেখানে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের একজন প্রতিনিধিকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।  

অগ্নিনির্বাপণ ও উদ্ধার সংক্রান্ত এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণের আয়োজন করায় তিনি ইসিই ডিসিপ্লিনকে ধন্যবাদ জানান এবং অন্যান্য স্কুল ও ডিসিপ্লিনও এ ব্যাপারে উদ্যোগী হবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।  

পরে তিনি প্রশিক্ষণের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

ইসিই ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. মো. আব্দুল আলিমের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বিজ্ঞান, প্রকৌশল ও প্রযুক্তিবিদ্যা স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. কামরুল হাসান তালুকদার, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস।  

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের পক্ষ থেকে উপ-পরিচালক মামুন মাহমুদ বক্তব্য দেন।  

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ইসিই ডিসিপ্লিনের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক প্রফেসর ড. মো. ইসমত কাদির। সঞ্চালনা করেন সহকারী অধ্যাপক ইতু পোদ্দার।

প্রশিক্ষণে ইসিই ডিসিপ্লিনের শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ প্রতিটি ব্যাচ থেকে ৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন। এ সময় সংশ্লিষ্ট স্কুলের বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের প্রধান ও শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।  

প্রশিক্ষণের শেষ পর্যায়ে দুপুর ২টায় অগ্নিনির্বাপণ মহড়া প্রদর্শন করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০২৩
এমআরএম/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

শিক্ষা এর সর্বশেষ