ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২৩ শাবান ১৪৪৫

শিক্ষা

জাপানের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে ঢাবি

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২৩
জাপানের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে ঢাবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন, বাংলাদেশ এবং জাপানের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে চমৎকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক উন্নয়নে অসাধারণ ভূমিকা রেখে চলছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগ।

শনিবার (১৪ জানুয়ারি) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবন মিলনাতনে এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগ এবং জাপান ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে Japanology in New Era শীর্ষক দুদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক হাইব্রিড এ সম্মেলন শুরু হয়।  

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইওয়ামা কিমিনোরি ও জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাহাবুদ্দিন আহমেদ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। জাপান ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিদেকি হারা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান ও জাপানের কোরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. কিচি ওগাওয়া সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবুল বারকাত ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আব্দুল্লাহ-আল-মামুন স্বাগত বক্তব্য দেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, বাংলাদেশ এবং জাপানের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জাপানিজ স্টাডিজ বিভাগ অসাধারণ ভূমিকা রেখে চলেছে। দুই দেশের মধ্যে বিরাজমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরও জোরদার করার লক্ষ্যে তিনি শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিনিময় কার্যক্রম আরও গতিশীল করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

ড. এ কে আব্দুল মোমেন জাপানকে বাংলাদেশের অন্যতম বৃহত্তম উন্নয়ন সহযোগী দেশ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, শিক্ষা, শিল্প ও সাংস্কৃতিক বিনিময় এবং মানুষের পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধির মাধ্যমে দুদেশের এই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও জোরদার করতে হবে।

বাংলাদেশ, জাপান, যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, থাইল্যান্ড, মিয়ানমার এবং চীনসহ ১৪টি দেশের শিক্ষাবিদ ও বিশেষজ্ঞরা এই সম্মেলনে অংশগ্রহণ করছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২৩
এসকেবি/এসআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।