ঢাকা, সোমবার, ৩ আষাঢ় ১৪৩১, ১৭ জুন ২০২৪, ০৯ জিলহজ ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

রামগঞ্জে ভোটকেন্দ্র দখলের চেষ্টা, আটক ৫ 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪৯ ঘণ্টা, মে ২১, ২০২৪
রামগঞ্জে ভোটকেন্দ্র দখলের চেষ্টা, আটক ৫ 

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলায় একটি ভোটকেন্দ্র দখলের চেষ্টা চালানোর সময় পাঁচজনকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।  

মঙ্গলবার (২১ মে) সকাল ১১টার দিকে পশ্চিম কাজিরখিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এক প্রার্থীর সমর্থকরা কেন্দ্রে হামলা চালিয়ে দখলের চেষ্টা করেন।

 

পরে পুলিশের ধাওয়ায় তারা পালিয়ে যান। এ ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। তবে তাদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। দুপুর ১২টা পর্যন্ত কেন্দ্র ও এর আশপাশের এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছিল।  

কোন প্রার্থীর লোকজন কেন্দ্র দখলের চেষ্টা চালিয়েছে, তাৎক্ষণিকভাবে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে ওই কেন্দ্রটি রামগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী দেওয়ান বাচ্চুর এলাকায়।  
 
এদিকে হামলাকারীরা পালিয়ে যাওয়ার পথে একটি মোটরসাইকেল ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ভাঙচুর করেন। এসময় অটোরিকশার চালক মনু মিয়াকে লাঠিপেটা করে আহত করা হয়। হামলাকারীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত ছিলেন।

খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক সুরাইয়া জাহান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ তারেক বিন রশিদ, রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট প্রিয়াংকা দত্ত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মেহের নিগার, রামগঞ্জ উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা শারমিন ইসলাম ও পুলিশ-বিজিবিসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।  

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল থেকে ভোটারদের কেন্দ্রে আসতে বাধা দেওয়া হচ্ছিল। পথে পথে ভোটারদের বাধা দেওয়া হয়। এতে অনেক ভোটার ভোট না দিতে পেরে ফিরে গেছেন। পরে বেশ কয়েকজন দখলের জন্য কেন্দ্রে ঢুকে পড়েন। একপর্যায়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য গিয়ে তাদের ধাওয়া করলে এতে তারা পালিয়ে যান।  

হামলাকারীদের আঘাতে আহত রিকশা চালক মনু মিয়া বলেন, আমার বাড়ি করপাড়া বদরপুর গ্রামে। আমি ভাড়া নিয়ে এসেছি। পাঁচজন যাত্রী ছিল। হঠাৎ করে একদল লোক আমার গাড়ি ভাঙচুর করেন। তাদের লাঠির আঘাতে আমার ডান হাত ভেঙে গেছে।

এদিকে হামলা বা কেন্দ্র দখলের চেষ্টার ঘটনায় প্রশাসনের কেউ বক্তব্য দিতে রাজি হননি।  

রামগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন ইমতিয়াজ আরাফাত (প্রতীক-আনারস), দেলোয়ার হোসেন দেওয়ান বাচ্চু (প্রতীক-মোটরসাইকেল), ফয়েজ বক্স বাবুল (প্রতীক-দোয়াত কলম) ও মো. মোশাররফ মুশু (প্রতীক-ঘোড়া)।  

এ উপজেলায় তিনজন ভাইস চেয়ারম্যান ও চারজন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৬ ঘণ্টা, মে ২১, ২০২৪
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।