ঢাকা, সোমবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৭ মে ২০২৪, ১৮ জিলকদ ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

ফের মনোনয়ন প্রত্যাশায় ঢাকার ২ মেয়র

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৯
ফের মনোনয়ন প্রত্যাশায় ঢাকার ২ মেয়র

ঢাকা: ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম আসছে নির্বাচনে আবারও মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন।

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী মুক্তিযোদ্ধা, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের সংবর্ধনা ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে এমন প্রত্যাশা প্রকাশ করেন তারা।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে আয়োজিত দিনব্যাপী মুক্তিযোদ্ধা, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা পরিবারদের সংবর্ধনা ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইমদাদুল হক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেন, পাঁচ বছরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের একটি মৌলিক পরিবর্তন এসেছে। সবসময় ইতিবাচক পরিবর্তন আনার চেষ্টা করেছি। সিটিতে উন্নয়ন হয়েছে। জনগণের সামর্থ্য আছে। দল থেকে আবারও মেয়র প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাশা আছে।

ঢাকার জলাবদ্ধতা নিয়ে তিনি বলেন, শান্তিনগর, নাজিমুদ্দিন রোড, বংশালসহ বিভিন্ন এলাকায় জলাবদ্ধতা নিরসন করেছি। জলাবদ্ধতা নিরসন একটি চলমান প্রক্রিয়া। এর কাছে দীর্ঘ সময় ধরে করতে হয়।

মেয়র বলেন, ইভিএম পদ্ধতিতে আমাদের আস্থা আছে। সরকারিভাবে যা নির্দেশনা আসবে, তা মেনে নিয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবো।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘ নয় মাস ধরে মেয়রের দায়িত্বে আছি। এই অল্প সময়ের মধ্যে যতটুকু পেরেছি, অভিজ্ঞতা নিয়েছি। এখন এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগানোর সময়। আমি মনে করি আওয়ামী লীগ আমাকে আবার মনোনয়ন দেবে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার আমাকে মনোনয়ন দিলে এবং আমি যদি নির্বাচিত হই তাহলে সবুজ ঢাকা গড়ার প্রত্যয় নিয়ে কাজ করব। পাশাপাশি জলাবদ্ধতা, যানজটের বিরুদ্ধে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ করতে চাই।

এই সংবর্ধনা ও পূনর্মিলনী অনুষ্ঠানে দুই হাজার ৮০০ মুক্তিযুদ্ধা, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাসহ তাদের পরিবারের সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৯
পিএস/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।