ঢাকা, সোমবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

নির্বাচন ও ইসি

ইউপি নির্বাচন

বিদ্রোহী বাবাকে নৌকা প্রার্থী ছেলের হুমকি!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩, ২০২২
বিদ্রোহী বাবাকে নৌকা প্রার্থী ছেলের হুমকি! বিদ্রোহী বাবাকে নৌকা প্রার্থী ছেলের হুমকি!

রাজবাড়ী: রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার যশাই ইউনিয়নে ছেলে নৌকার প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। আর নৌকার মনোনয়ন না পেয়ে তার বাবা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন।

বাবা-ছেলের নির্বাচনী যুদ্ধ নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে সর্বত্র। অনেকে আবার বিষয়টি নিয়ে হাসাহাসি করছেন।

নৌকার প্রার্থীর নাম- আবু হাসান। আর বিদ্রোহী প্রার্থীর (ঘোড়া প্রতীক) নাম আবদুল হাকিম খান।

নৌকার প্রার্থী আবু হাসান পাংশা উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। আর আবদুল হাকিম এ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও যশাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি।

বাবা-ছেলে ছাড়াও চেয়ারম্যান পদে আরও চারজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান, জাকের পার্টির প্রার্থী আল মামুন, স্বতন্ত্র তোফাজ্জেল হোসেন ও শাজাহান মিয়া।

বাবা-ছেলের ভোটযুদ্ধ নিয়ে এলাকায় নানা আলোচনা চলছে। দু’জনই আওয়ামী লীগের নিবেদিত কর্মী। ভোটাররা কার দিকে যাবেন, কার সঙ্গে কাজ করবেন তা নিয়ে পড়েছেন বিপাকে।

এ বিষয়ে হাকিম খান জানান, তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। কিন্তু তাকে বঞ্চিত করে ছেলে আবুকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এটি অন্যায় হয়েছে। ইউনিয়নে তার ব্যাপক জনপ্রিয়তা রয়েছে। মানুষ তার পক্ষে রয়েছে। এ কারণে মনোনয়ন না পেয়ে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন।

তিনি আরও জানান, নির্বাচনী পরিবেশ মোটেই ভালো নয়। তার প্রচারের জন্য মাইক নিয়ে বের হলেই নৌকার লোকজন ফিরিয়ে দিচ্ছেন। প্রচারে বাধা দেওয়া হচ্ছে, হুমকি-ধামকি দেওয়া হচ্ছে।  সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিপুল ভোটে তিনি জয়লাভ করবেন বলে দাবি করেন।

হুমকি-ধামকি ও ভয়ভীতি সৃষ্টির অভিযোগ করেছেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সিদ্দিকুর রহমানও। তিনি জানান, রাত ১২টার পর নৌকার লোকজন বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটারদের ভয় দেখাচ্ছেন। এটি সুষ্ঠু নির্বাচনের অন্তরায়। বিষয়টি তিনি নির্বাচন কর্মকর্তাকে মৌখিকভাবে জানিয়েছেন।

নৌকার প্রার্থী আবু হাসান বলেন, বাবা যেসব অভিযোগ করেছেন তা সত্য নয়। বাবা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। চুপচাপ হয়ে গেছেন। মনোনয়নের আগে তাকে বলা হয়েছিল, আপনি আমাদের সঙ্গে কাজ করেন। তার পর আর তার সঙ্গে কথা হয়নি।

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সিদ্দিকুর রহমানের অভিযোগ সম্পর্কে আবু হাসান বলেন, সিদ্দিকের লোকজনই এসব করে বেড়ায়। এ ছাড়া নির্বাচনী পরিবেশ সুষ্ঠু আছে।

যশাই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা প্রভাষ চন্দ্র সেন জানান, নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণায় বাধার বিষয়ে কেউ তাকে অভিযোগ দেয়নি। প্রার্থীরা যেন নির্বিঘ্নে প্রচার চালাতে পারেন সেদিকে খেয়াল রাখা হবে।

পাংশা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবদুল আলিম জানান, যশাই ইউনিয়নের বিষয়ে কোনো অভিযোগ নেই।

পঞ্চম ধাপে ৫ জানুয়ারি এ ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৩, ২০২২
জেডএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa