ঢাকা, রবিবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৩ রজব ১৪৪৪

নির্বাচন ও ইসি

প্রয়োজনে রোজা রাখবে, তবুও প্রার্থীদের দেওয়া কিছু খাবে না পুলিশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৪, ২০২২
প্রয়োজনে রোজা রাখবে, তবুও প্রার্থীদের দেওয়া কিছু খাবে না পুলিশ

ফেনী: ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বদরুল আলম মোল্লা বলেছেন, ভোট কেন্দ্রে দায়িত্বরত অবস্থায় পুলিশ সদস্যরা প্রয়োজনে রোজা রাখবেন, তবুও কোনো প্রার্থীর দেওয়া কিছু খাবেন না। নির্বাচনে নিরপেক্ষতা বজায় রাখার ব্যাপারে এটি কঠোরভাবে পালন করতে হবে।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) জেলার ১২টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন উপলক্ষে ফেনী মিজান ময়দানে পুলিশ ও আনসার সদস্যদের নিয়ে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব নির্দেশনা দেন তিনি।  

ফেনী মডেল থানা এই আয়োজন করে।   এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) আবদুল্লাহ আল মামুন।

তিনি বলেন, নির্বাচনে পুলিশ নিরেপক্ষ ভূমিকায় থাকবে। কোনো বহিরাগত দেখলেই পুলিশ আটক করবে। কাউকে কোনো ধরনের ছাড় দেওয়া হবে না।

এ সময় সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) রবিউল ইসলামসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন ।

উল্লেখ্য বুধবার অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে ফেনী সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের ৬টিতেই চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। ১২টি ইউনিয়নে মোট ভোটার ২ লাখ ৫৩ হাজার ১৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৪৯ হাজার ৭৯২ জন আর নারী ভোটার ১ লাখ ২৮ হাজার ১৩৫ জন।

নির্বাচনে মোট প্রার্থী রয়েছেন ৫৭১ জন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান প্রার্থী ১৫ জন। মেম্বার প্রার্থী ৪৫৬ জন। সংরক্ষিত নারী মেম্বার প্রার্থী ১০১ জন। কেন্দ্র সংখ্যা ১০২টি।   যার মধ্যে অতি গুরুত্বপূর্ণ ৪১ টি, গুরুত্বপূর্ণ ৭৪ টি।

নির্বাচনী কার্যক্রম নিরাপত্তায় থাকবে সাড়ে ৮’শ পুলিশ,প্রায় ২ হাজার আনসার ও বিডিবি, ৪০ সদস্যের বিজিবি ছাড়াও র‌্যাব ও নির্বাহী ম্যাজিষ্টেটরা  দায়িত্বে থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৭ ঘণ্টা, ৮ ডিসেম্বর,২০২২
এসএইচডি/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa