ঢাকা, রবিবার, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৬ রজব ১৪৪৪

নির্বাচন ও ইসি

স্বতন্ত্র প্রার্থীকে মারধর করে ডোবায় ফেলে দেয় নৌকার সমর্থকরা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৫, ২০২২
স্বতন্ত্র প্রার্থীকে মারধর করে ডোবায় ফেলে দেয় নৌকার সমর্থকরা

নোয়াখালী: নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলায় পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে এক স্বতন্ত্র প্রার্থীকে মারধর করে রক্তাক্ত অবস্থায় ডোবায় ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে নৌকা প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর ৪ অনুসারী আহত হন।

হামলার শিকার স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী দিদার হোসেন। তিনি উপজেলার ৯ নম্বর দেওটি ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার ৯ নম্বর দেওটি ইউনিয়নের দেওটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী স্বতন্ত্র প্রার্থী অভিযোগ করেন, তিনি বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দেওটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে যান। কেন্দ্র থেকে বাহির হওয়ার কিছুক্ষণ পর নৌকার সমর্থক কিং মোজাম্মেলের লোকজন তার ওপর হত্যার উদ্দেশে হামলা চালায়। এসময় তারা তাকে মারধর করে একটি ডোবায় ফেলে দেয়।  

তিনি আরও অভিযোগ করেন, এছাড়াও কয়েকটি ভোট কেন্দ্রে প্রবেশ করতে নৌকার সমর্থকরা তাকে বাধা দেয়।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ৯ নম্বর দেওটি ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নুরুল আমিন শাকিল বাংলানিউজকে বলেন, দিদার হোসেন মাটিতে পড়ে গায়ে কাদা মেখে নাটক করেছে। উল্টো দিদারের সমর্থকদের হামলায় আমার ২০-২২ জন অনুসারী আহত হন। আমার কোনো সমর্থক তার ওপর হামলা চালায়নি।

সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন অর রশীদ বাংলানিউজকে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এমন অভিযোগ পায়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে বিয়টি খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৫, ২০২২
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa