ঢাকা, সোমবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

নির্বাচন ও ইসি

ইউপি নির্বাচন

হবিগঞ্জে জামানত হারাচ্ছেন ৪০ চেয়ারম্যান প্রার্থী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৫৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৬, ২০২২
হবিগঞ্জে জামানত হারাচ্ছেন ৪০ চেয়ারম্যান প্রার্থী

হবিগঞ্জ: পঞ্চম ধাপে হবিগঞ্জের মাধবপুর ও চুনারুঘাট উপজেলার ২১টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনিত দুই প্রার্থীসহ ৪০ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী তাদের জামানত হারাচ্ছেন। নির্বাচনে সব মিলিয়ে ১০৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিলেন।

এর মধ্যে ৪০ জনেরই জামানত বাজেয়াপ্ত হতে যাচ্ছে।

বুধবার (৫ জানুয়ারি) রাতে বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফল পর্যবেক্ষণে এ তথ্য জানা গেছে।

ফল অনুযায়ী চুনারুঘাট উপজেলায় ৪৮ চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে ১৭ জন ও মাধবপুরে ৫৬ জনের মধ্যে ২৩ জনই জামানত হারাতে যাচ্ছেন।

জানতে চাইলে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাদেকুল ইসলাম বলেন, কোনো প্রার্থী নির্বাচনে প্রদত্ত ভোটের এক অষ্টমাংশের চেয়ে কম ভোট পেলে তার জামানতের টাকা বাজেয়াপ্ত হবে।

জামানত হারানো প্রার্থীরা হলেন- মাধবপুর উপজেলার এক নম্বর ধর্মঘর ইউপিতে স্বতন্ত্র মো. সাইফুর রহমান, দুই নম্বর চৌমুহনীতে স্বতন্ত্র শাহ সৈয়দ আমান উল্লাহ, তিন নম্বর বহরায় স্বতন্ত্র শাহ মো. আল আমিন, পাঁচ নম্বর আন্দিউড়ায় জাতীয় পার্টির কায়সার আহমেদ, স্বতন্ত্র মো. এখলাছুর রহমান ও মো. আলফাজ মিয়া, ছয় নম্বর শাহজাহানপুরে স্বতন্ত্র মো. আবুল কালাম আজাদ, সাত নম্বর জগদীশপুরে স্বতন্ত্র নাছির উদ্দিন খান ও শেখ আব্দুল জলিল, আট নম্বর বুল্লায় স্বতন্ত্র শামীম রহমান, নয় নম্বর নোয়াপাড়ায় আওয়ামী লীগ মনোনিত মুজাহিদ বিন ইসলাম, স্বতন্ত্র মো. আজিজুর রহমান ও সৈয়দ আদেল আহমেদ, দশ নম্বর ছাতিয়াইনে স্বতন্ত্র কেএম বায়েজিদ বুস্তামী, জিয়াউর রহমান, মো. মহিবুল ইসলাম, রুকন মিয়া ও জাতীয়পার্টির মো. সানিউর রহমান এবং এগারো নম্বর বাঘাসুরা ইউপিতে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী মো. এখলাছ মিয়া ও জাতীয় পার্টির কামরুজ্জামান।

চুনারুঘাট উপজেলার এক নম্বর গাজিপুর ইউপিতে স্বতন্ত্র মোহাম্মদ আলী, দুই নম্বর আহাম্মদাবাদে স্বতন্ত্র বেলায়েত আলী, মো. সামছুল আলম, যুবরাজ ঝড়া ও হাজী মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ, তিন নম্বর দেওরগাছে স্বতন্ত্র ইব্রাহিম কবির ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কদ্দুছ আলী, চার নম্বর পাইকপাড়ায় স্বতন্ত্র শামীম মিয়া ও সোহেল মিয়া, পাঁচ নম্বর শানখলায় স্বতন্ত্র আবুল কালাম চৌধুরী, ছয় নম্বর চুনারুঘাট সদরে স্বতন্ত্র আব্দুর রউফ ও ফারুক আহমদ, সাত নম্বর উবাহাটায় স্বতন্ত্র মীর মো. ফজলুর রহমান ও রিপন চন্দ্র চন্দ, নয় নম্বর রানীগাঁওয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মুর্শেদ আহম্মদ চৌধুরী ও স্বতন্ত্র মোশাহিদুর রহমান এবং দশ নম্বর মিরাশীতে স্বতন্ত্র মো. আব্দুল মনাফ।

নৌকা প্রতীক নিয়ে জামানত হারানো দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে মাধবপুরের নোয়াপাড়া ইউপিতে শেখ মুজাহিদ বিন ইসলাম ১ হাজার ২৫৪ ও বাঘাসুরা ইউপিতে মো. এখলাছ মিয়া ১ হাজার ৮৬৯ ভোট পেয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৬, ২০২২
জেডএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa