ঢাকা, রবিবার, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৬ রজব ১৪৪৪

নির্বাচন ও ইসি

মিলছে না ভোটারদের আঙুলের ছাপ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২২
মিলছে না ভোটারদের আঙুলের ছাপ অনেক ভোটারের আঙুলের ছাপ মিলছে না | ছবি: ডিএইচ বাদল

ঢাকা: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের সবগুলো কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ হচ্ছে। তবে ভোটারদের আঙুলের ছাপ মেলাতে অনেকটা সময় ব্যয় করতে হচ্ছে, অনেকে আঙুলের ছাপ না মেলায় ভোট দিতে পারছেন না।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র গিয়ে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

নারায়ণগঞ্জ বার একাডেমিতে ৮৭, ৮৮, ৮৯ তিনটি কেন্দ্র রয়েছে। এ তিন কেন্দ্রে বেশির ভাগ নারী ভোটারই পঞ্চাশোর্ধ্ব। তাদের আঙুলের ছাপ মেলাতে অনেকটা বেগ পেতে হচ্ছে। অনেকের আঙুলের ছাপ একেবারেই মিলছে না।

রোকেয়া বেগম (৫৫) মেয়েকে নিয়ে এসেছেন ভোট দিতে। আঙুলের ছাপ না মেলায় ভোট দিতে তিনি পারেননি। পরে আবার চেষ্টা করবেন বলে কেন্দ্রের বাইরে দাঁড়িয়ে রয়েছেন।

বাংলানিউজকে রোকেয়া বেগম বলেন, আমার ভোট কোন কেন্দ্রে পড়ছে তাই খুঁইজা পাই না। অনেক ঘোরাঘুরি করে পাইলাম, এখন ওই মেশিনে আমার আঙুলের ছাপ মেলে না। কিছুক্ষণ পর আবার যাইয়া দেখি আঙুলের ছাপ মিলে কিনা!

ভোটার স্লিপ ও জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে কেন্দ্র খুঁজছিলেন মিনা আক্তার। তিনি বলেন, এখানে দুটি কেন্দ্র মহিলা ভোটারদের জন্য। কিন্তু দুই কেন্দ্রের কোনোটিতেই আমার নম্বর মিলছে না। এখন কী করবো, ভোট দিতে এসে বিড়ম্বনায় পড়েছি।

বিষয়টি ৮৮ নম্বর কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসারকে জানালে তিনি বলেছেন এই কেন্দ্রে তার ভোট নেই। কেন্দ্র খুঁজে না পেয়ে মাঠে দাঁড়িয়ে আছেন মিনা আক্তার।

পিজাইডিং অফিসার রাজিব শাহা বাংলানিউজকে বলেন, এই কেন্দ্রে দুপুর ১টা পর্যন্ত ৭২২টি ভোট কাস্ট হয়েছে। কেন্দ্রে সুষ্ঠুভাবেই ভোটগ্রহণ চলছে। তবে ধীরগতি রয়েছে। এর কারণ ইভিএম মেশিনে নারী ভোটারদের আঙুলের ছাপ মিলতে দেরি হচ্ছে। কারণ ২০০৮ সালের হালনাগাদ তথ্যই দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তাই অনেকের আঙুলের ছাপ মিলতে দেরি হচ্ছে। এক একজন ভোটার ৬/৭ বার আঙুল দেওয়ার পর মেশিন তা নিচ্ছে। আবার অনেকেরটা নিচ্ছে না।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরিদর্শন করছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। সাংবাদিকরা তার কাছে নির্বাচনী পরিস্থিতি প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, নো কমেন্টস, নির্বাচন নিয়ে যা বলার সব বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ব্রিফ করে বলবো। এখন কোনো কিছুই বলা যাবে না।

নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার (এসপি) জায়েদুল আলম বলেন, এখন পর্যন্ত নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি খুবই ভালো আছে। ভোটাররা নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা বলয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিচ্ছেন। নিরাপত্তা নিশ্চিত হওয়ায় ভোটকেন্দ্রে নারী ও বয়স্ক ভোটাররা কেন্দ্রে হাজির হচ্ছেন। তারা নির্ভয়ে নিরাপদ পরিবেশে ভোট দিচ্ছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২২
এসজেএ/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa