ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪৩১, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

বিনোদন

কানে পুরস্কৃত লালন সাঁইজিকে নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র 

হোসাইন মোহাম্মদ সাগর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৪, ২০২৩
কানে পুরস্কৃত লালন সাঁইজিকে নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র 

ঢাকা: বিশ্ব চলচ্চিত্রের অলিগলিতে এখন বাংলাদেশের পদচারণা। বিনোদনধর্মী বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রের বাইরেও স্বাধীন নির্মাতাদের হাত ধরে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে তার সমান্তরাল যাত্রা।

দেশের তরুণ স্বাধীন নির্মাতারা একের পর এক সেই যাত্রায় যোগ করছেন সোনালী পালক। তারই ধারাবাহিকতায় বিশ্বদরবারে আরও একবার নিজস্ব অবয়ব খুঁজে পেলো বাংলাদেশী চলচ্চিত্র।

বলা হয়ে থাকে, বিদেশের দর্শক ও চিত্রসমালোচকেরা সাধারণত বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের নিজস্বতা খুঁজে পান না। তবে সেই মূল্যায়নকে পেছনে ফেলে ফ্রান্সে অনুষ্ঠিতব্য ‘কানস্ ওয়ার্ল্ড ফিল্ম ফেস্টিভালে’ নমিনি অ্যাওয়ার্ড অর্জন করে নিলো চিত্র নির্মাতা আশিক রাজিব।

মরমী সাধক লালন সাঁইকে নিয়ে তার নির্মিত ‘সাধক লালন সাঁইজি- দ্যা ডিভাইন সওল’ চলচ্চিত্রটি বেস্ট ডকুমেন্টরি শর্ট ফিল্ম ক্যাটাগরিতে এই অ্যাওয়ার্ড অর্জন করে।

মরমী সাধক লালন সাঁই-এর জীবন, কর্ম ও দর্শনকে কেন্দ্র করে এই তথ্যচিত্রটির নির্মাণ বলে জানান নির্মাতা আশিক রাজিব।  

বাঙালির নিজস্ব স্বকীয়তার এই চলচ্চত্রটিই এর আগে ২০২২ সালে মেরিট অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হয় কানাডা ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভালে। এরপর নতুন এই প্রাপ্তি যেন বাংলার সুফিধারার তথ্য চিত্রকে বিশ্ব দরবারে এগিয়ে নিয়ে গেলো আরো একধাপ।

এই বিষয়ে নির্মাতা আশিক রাজিব বলেন, আমার নির্মাণ করা চলচ্চিত্র যে বাংলাদেশকে বিশ্ব দরবারে গর্বিত করেছে, এটা আমার জন্য অনেক বড় একটি প্রাপ্তি। আমি ভবিষ্যতে আরো সৃষ্টিশীল কাজের মধ্য দিয়ে বিশ্বদরবারে বাংলাকে এগিয়ে নিতে চাই। বাংলার শিল্প-সাহিত্য-দর্শন-বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব এবং মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কাজ করতে চাই।

তরুণ নির্মাতা আশিক রাজিব জানান, কানাডা ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল থেকে গত ৩০ নভেম্বর মেরিট অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত হওয়ার পর ০৭ ডিসেম্বর কানস ওয়ার্ল্ড ফিল্ম ফেস্টিভালে তথ্যচিত্রটি জমা দেওয়া হয়। পরবর্তীতে ২১ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখে জুরিবোর্ডের মেম্বার এবং এজিএম মিউজিক ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশনের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক এস বেরি এবং পৃথিবী বিখ্যাত ভিজুয়াল এফেক্ট সুপারভাইজার জিম রাইগাল তাদের সুদক্ষ বিচারে তথ্যচিত্রটি নমিনি অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করে।  

জানা গেছে, আগামী শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) ফ্রান্সে অনুষ্ঠিতব্য এই আয়োজনে চলচ্চিত্রটি দেখানো হবে।

তথ্যচিত্রটি নির্মাণে এই নির্মাতার সঙ্গে আরো যুক্ত ছিলেন প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর হিসেবে আসিফ আরাফাত গালিব, ড্রোন পাইলট হিসেবে আবু মিরাজ রুদ্র, স্ক্রিপ্ট রাইটিংয়ে রব রাইসন, গিম্ব্যাল শর্টে সৌরভ কুমার, ভিডিও এডিটিংয়ে কাজী ওহী এবং ভয়েস ওভারে ইভান ক্রিস্টোফার।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০২৩
এইচএমএস/এনএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।