ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ চৈত্র ১৪৩০, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ০২ শাওয়াল ১৪৪৫

বিনোদন

রাজশাহীতে স্টার সিনেপ্লেক্সের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০২৩
রাজশাহীতে স্টার সিনেপ্লেক্সের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু

বাংলাদেশের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী এবং প্রাচীন নগরী রাজশাহী। পদ্মা নদীর তীরবর্তী এই শহর উত্তরবঙ্গের সবচেয়ে বড় শহর।

বাংলাদেশের সবচেয়ে পরিচ্ছন্ন এবং সবুজ শহরও রাজশাহী। তাই একে বলা হয় গ্রীন সিটি।

এছাড়া আরও অনেক নামে ডাকা হয় রাজশাহীকে। যেমন-শিক্ষানগরী, সিল্ক সিটি, রেশমী নগরী।

২০১৬ সালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী বায়ূ দূষণ কমানোয় বিশ্বসেরা শহরগুলোর মধ্যে শীর্ষে স্থান পায় রাজশাহী। এত খ্যাতি যে শহরের সেখানে আধুনিক মানসম্পন্ন একটি সিনেমা হলের অভাব বোধ করছিলেন দর্শকরা।  

সামাজিকমাধ্যমসহ নানাভাবে এ বিষয়টি তুলে ধরেছেন অনেকে। বলা চলে, এটি ছিলো সময়ের দাবী। এবার রাজশাহীবাসীর সেই দাবী পূরণ হলো এবার। রাজশাহীতে যাত্রা শুরু করলো হচ্ছে মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল ‘স্টার সিনেপ্লেক্স’।  

শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) রাজশাহীর বুলনপাড়া আই বাধ সংলগ্ন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্কে জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মধ্য দিয়ে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। আরো উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক৷

জানা গেছে, এই মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হলে শনিবার (১৪ জানুয়ারি) থেকে দর্শকরা সিনেমা দেখতে পাবে। এখানে আসন সংখ্যা ১৭২ টি।  

বরাবরের মতো নান্দনিক পরিবেশ, সর্বাধুনিক প্রযুক্তিসম্বলিত সাউন্ড সিস্টেম, জায়ান্ট স্ক্রিনসহ বিশ্বমানের সিনেমা হলের যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা এখানেও থাকছে বলে অনুষ্ঠানে জানান স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান রুহেল।  

রাজশাহীতে সিনেপ্লেক্স চালু সম্পর্কে তিনি বলেন, রাজশাহী দেশের ঐতিহ্যবাহী একটি শহর। এখানে প্রচুর সিনেমাপ্রেমী দর্শক রয়েছেন যারা স্টার সিনেপ্লেক্সের মতো একটি মাল্টিপ্লেক্স প্রত্যাশা করেন। অনেকেই বিভিন্ন মাধ্যমে আমাদের কাছে দাবি জানিয়েছেন। সেই দাবি পূরণের কাজটি করতে পেরে আমি আনন্দিত। আমরা চেষ্টা করছি স্টার সিনেপ্লেক্সকে দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে, যাতে সারাদেশের মানুষ বিশ্বমানের সিনেমা হলে সিনেমা দেখার সুযোগ পান।  

রাজশাহী শহরে নব্বইয়ের দশক পর্যন্ত সাতটি সিনেমা হল ব্যাপক জনপ্রিয় ছিল। সে সময় ভালো কিছু সিনেমা নির্মাণ হওয়ায় হলগুলোতে ভিড় লেগেই থাকত সিনেমাপ্রেমীদের। কিন্তু ২০১০ সালের পর চলচ্চিত্রের দুরবস্থা শুরু হলে বন্ধ হতে থাকে হলগুলো। সবশেষ ২০১৮ সালে বন্ধ হয় ‘উপহার’ সিনেমা হলটি। একের পর এক সিনেমা হল বন্ধ হওয়ায় একেবারেই হলশূন্য হয়ে পড়ে শহরটি। সেই শূন্যতা কাটিয়ে আবারো হলমুখী হবেন রাজশাহী জেলার সিনেমাপ্রেমী মানুষেরা-এমনটাই প্রত্যাশা স্থানীয়দের।

নতুন নতুন মাল্টিপ্লেক্স নির্মাণ প্রসঙ্গে মাহবুব রহমান রুহেল বলেন, পর্যায়ক্রমে আমরা আরো অনেকগুলো মাল্টিপ্লেক্স নির্মাণ করবো। দেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির প্রসারে আমাদের এই উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে। দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ স্ক্রিন চালু হলো। আমরা টার্গেট সারাদেশে ১০০ স্ক্রিন চালু করা। আমরা বিশ্বাস করি এর মাধ্যমে সিনেমা হলের হারানো ঐতিহ্য আবার ফিরে আসবে। পরিবার-পরিজন নিয়ে হলে গিয়ে সিনেমা দেখার সুস্থ পরিবেশ আবার তৈরি হবে।  

উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ৮ অক্টোবর রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি শপিং মলে যাত্রা শুরু করে দেশের প্রথম মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল ‘স্টার সিনেপ্লেক্স’। বর্তমানে এর ঢাকায় ৫টি ও চট্টগ্রামে ১টি শাখা রয়েছে। ধানমন্ডির সীমান্ত সম্ভার (সাবেক রাইফেলস স্কয়ার), মহাখালীর এসকেএস (সেনা কল্যাণ সংস্থা) টাওয়ার, মিরপুরের সনি স্কয়ার এবং বিজয় স্বরনির সামরিক জাদুঘর ও চট্টগ্রামের বালি আর্কেড শপিং মলে শাখাগুলো অবস্থিত। এছাড়া ঢাকার উত্তরা এবং বগুড়ায় নতুন শাখার নির্মাণ কাজ চলছে।  

বাংলাদেশ সময়:২০১৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০২৩
এনএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।