ঢাকা, শুক্রবার, ২০ মাঘ ১৪২৯, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১১ রজব ১৪৪৪

ফুটবল

কুতিনহোকে ধারে অ্যাস্টন ভিলায় পাঠালো বার্সা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৭, ২০২২
কুতিনহোকে ধারে অ্যাস্টন ভিলায় পাঠালো বার্সা

বছর চারেক আগেও তাকে বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার হিসেবে বিবেচনা করা হতো। কিন্তু লিভারপুল ছেড়ে 'স্বপ্নের ক্লাব' বার্সেলোনায় যোগ দিয়েই যেন নিজেকে হারিয়ে ফেলেন এই ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার।

ক্যারিয়ারের চরম দুঃসময় পার করেছেন ক্যাম্প ন্যুয়ে। তাকে বিক্রি করে ভারমুক্ত হতে চাইছিল কাতালান জায়ান্টরাও। কিন্তু অফ-ফর্মে থাকা এই ফুটবলারকে কেউ কিনতেও চাচ্ছিল না। অবশেষে তাকে ধারে অ্যাস্টন ভিলায় পাঠালো বার্সা।  

এক বিবৃতিতে বার্সার সঙ্গে চুক্তিতে পৌঁছানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ইংলিশ ক্লাবটি। ধারের মেয়াদ শেষে তাকে পাকাপাকিভাবে কেনার সুযোগও থাকছে তাদের সামনে। আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে বার্মিংহামে গিয়ে শারীরিক পরীক্ষানিরীক্ষা শেষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করবেন কুতিনহো।  তবে ধারে পাঠালেও বেতনের কিছু অংশ বার্সাকেই পরিশোধ করতে হবে। এই ব্রাজিলিয়ানকে করসহ ১ কোটি ৬০ লাখ ইউরো বেতন দিত বার্সেলোনা। ফুটবলারদের বেতন-ভাতা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায় আর্থিক সমস্যায় জর্জরিত ক্লাবটিতে নতুন যোগ দেওয়া ফেরান তোরেসকে লা লিগায় নিবন্ধন করতে পারছিল না বার্সেলোনা। এবার সেই সমস্যার সমাধান হলো।

সবমিলিয়ে প্রায় চার বছর পর প্রিমিয়ার লিগে ফিরছেন কুতিনহো। অ্যাস্টন ভিলায় তার সঙ্গে সাবেক লিভারপুল অধিনায়ক স্টিভেন জেরার্ডের পুনর্মিলন ঘটতে চলেছে। তবে এবার দুজনের ভূমিকা ভিন্ন। একসময় এই জেরার্ডের সঙ্গেই জুটি বেঁধে অলরেডদের হয়ে দুই বছর দাপট দেখিয়েছেন কুতিনহো। আর এবার সাবেক ইংলিশ মিডফিল্ডারের শিষ্য হিসেবে যাচ্ছেন তিনি।

এর আগে ২০১৮ সালে ১৬০ মিলিয়ন ইউরোর চমক জাগানিয়া ট্রান্সফার ফিতে বার্সায় যোগ দিয়েছিলেন কুতিনহো। কিন্তু নতুন ঠিকানায় নিজেকে খাপ খাওয়াতে পারেননি তিনি। এরপর ২০১৯/২০ মৌসুমে ধারে বায়ার্ন মিউনিখে যোগ দেন তিনি। স্মৃতিটা বার্সার জন্য মোটেও সুখকর ছিল না। ২০২০ চ্যাম্পিয়নস লিগে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলে হেরেছিল বার্সা। ৬ষ্ঠ গোলটি করেছিলেন ধারে বায়ার্নে যাওয়া কুতিনহো! কিন্তু সেখানেও স্থায়ী হতে পারেননি, কারণ বায়ার্ন তার বিশাল অঙ্কের বেতন দিতে হিমশিম খাচ্ছিল। তাছাড়া কুতিনহোর ফর্মও খুব আহামরি ছিল না। ফলে এক মৌসুম পর ক্যাম্প ন্যুয়ে ফিরে আসেন তিনি। কিন্তু এবারও বার্সার পরিকল্পনায় প্রথম সারিতে ছিল না তার নাম। ফলে তার বেতনের বোঝা থেকে মুক্ত হতে চাইছিল বার্সা।  

এবার জানুয়ারির শুরুতে কুতিনহোকে নিতে আগ্রহ দেখিয়েছিল সৌদি আরবের রাজপরিবারের অর্থায়নে ধনী ক্লাব বনে যাওয়া নিউক্যাসল ইউনাইটেড। এমনকি তার সাবেক ক্লাব লিভারপুলও ছিল আগ্রহীদের তালিকায়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দৌড়ে জয়ী হলো অ্যাস্টন ভিলা। এখানে শুরু থেকেই মূল একাদশে খেলার আশা করছেন বার্সার হয়ে এই মৌসুমে মাত্র ৫ ম্যাচ খেলা কুতিনহো।  

সামনে কাতার বিশ্বকাপ। ফলে মাঠে নিয়মিত না হতে পারলে ব্রাজিল দলে কুতিনহোর ডাক পাওয়ার সম্ভাবনা কম। তাছাড়া তিতের দলে সর্বশেষ ২০২০ সালের অক্টোবরে খেলেছেন তিনি। ফলে বার্সায় থাকলে তার ক্যারিয়ার বরবাদ হওয়ার জোর সম্ভাবনা ছিল। তাই প্রিমিয়ার লিগের নিচের সারির দলের হয়েই নিয়মিত মাঠে নামতে চান তিনি। অন্যদিকে তাকে গত গ্রীষ্মে ম্যানচেস্টার সিটিতে পাড়ি জমানো ইংলিশ মিডফিল্ডার জ্যাক গ্রিলিশের বিকল্প ভাবছে ভিলা। দলটি জেরার্ডের অধীনে ঘুরে দাঁড়িয়ে এখন আছে লিগ টেবিলের ত্রয়োদশ স্থানে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৭, ২০২২
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa