ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৩ জুন ২০২৪, ০৫ জিলহজ ১৪৪৫

ভারত

ভোট দিতে পারলেন না মমতার ভাই, তালিকায় নাম নেই

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১০ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২৪
ভোট দিতে পারলেন না মমতার ভাই, তালিকায় নাম নেই

কলকাতা: লোকসভা ভোটের কয়েকদিন আগেই শিরোনামে উঠে এসেছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের (বাবুন) নাম। প্রকাশ্যে মুখ্যমন্ত্রী নিজের ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন।

তাকে পরিবার থেকে ত্যাজ্য করেছেন বলে জানিয়েছিলেন মমতা। সেই ভাই বাবুন চলতি লোকসভা নির্বাচনে নিজের ভোটটাও দিতে পারলেন না।

হাওড়া সংসদীয় আসনের ভোটার বাবুন। সোমবার (২০ মে) লোকসভার পঞ্চম ধাপের নির্বাচনে ভোট দিতে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তালিকা দেখে অবাক হয়ে যান বাবুন। তার নামের ওপর লেখা ‘ডিলিটেড’। তাই ভোটই দেওয়া হলো না বাবুনের।

২০২২ সালে এই আসনে ভোটার হয়েছেন বাবুন। এদিন ভোট দিতে না পারায় সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন। গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে না পেরে মর্মাহত বাবুন বলেন, আমার মাথায় ঢুকছে না কী হলো! ২০২২ সালে ভোটার হয়েছি। একজন নাগরিক হিসেবে ভোট দেওয়া তো অধিকার। কেন এমন হলো, আমি নির্বাচন কমিশনের (ইসি) কাছে জানতে চাইছি।

চলতি লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হওয়ার পরই প্রকাশ্যে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন মমতার ভাই বাবুন। হাওড়ার তৃণমূল প্রার্থী প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করাই শুধু নয়, স্বতন্ত্র হিসেবে ভোটে লড়ার কথাও বলেছিলেন তিনি।

মূলত এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে তৃণমূলের টিকিট চেয়েছিলেন। কিন্তু তাকে দেওয়া হয়নি। তাই হাওড়া আসন থেকে স্বতন্ত্র হয়ে দাঁড়াবেন বলে জানিয়েছিলেন বাবুন। এমনকি তার সঙ্গে বিজেপির ভালো যোগাযোগ আছে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

এরপরই ১৩ মার্চ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষোভ জানিয়ে সংবাদমাধ্যমে বলেছিলেন, আজ থেকে আমি ওর সাথে সব সম্পর্ক ত্যাগ করলাম। শুধু আমি নই, আমাদের পরিবার, যাদের সাথে ওর রক্তের সম্পর্ক, এমনকি তৃণমূল দলের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক আজ থেকে ছেদ হয়ে গেল। আজ থেকে ওকে আমার ভাই হিসেবে আপনারা কেউ পরিচয় দেবেন না। সে (বাবুন) যেখানে ইচ্ছা যেতে পারে।

মমতার ক্ষোভ প্রকাশের পরে অবশ্য সুর বদলে যায় বাবুনের। তিনি বলেন, সারাজীবন দিদির সঙ্গেই থাকব।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৮ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২৪
ভিএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।