ঢাকা, রবিবার, ২১ মাঘ ১৪২৯, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৩ রজব ১৪৪৪

আইন ও আদালত

গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধে মামলা খারিজ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২২
গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধে মামলা খারিজ

মাদারীপুর: ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর সাবেক জিএস গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা খারিজ করেছেন আদালত।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মাদারীপুর আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম ফয়সাল আল মামুন মামলাটি খারিজ করে দেন।

এর আগে ২৯ ডিসেম্বর হামলা আর লুটপাতের অভিযোগে গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধে মাদারীপুর আদালতে অভিযোগ দায়ের করেন রাজৈর উপজেলার মধ্য শাখারপাড় গ্রামের আব্দুল গনি মাতুব্বর নামে এক ব্যক্তি।

অভিযোগটি গ্রহণ করে ৫ জানুয়ারি ও ৯ জানুয়ারি দুই দফা আদেশের শুনানির দিন ধার্য করা হয়। কিন্তু এ দুই দফায় কোনো আদেশ দেননি আদালত।

সোমবার বিকেলে ফৌজদারি কার্যবিধির ২০৩ ধারা মোতাবেক মামলাটি খারিজের আদেশ দেন আদালত। তবে বাদীপক্ষের আইনজীবী ফয়জুর রহমান হিরু বিষয়টি নিয়ে উচ্চ আদালতে যাওয়ার কথা বলেন।

আদালতে দায়ের করা এজাহার থেকে জানা যায়, গত ২৬ ডিসেম্বর গোলাম রাব্বানী দলবল নিয়ে রাজৈর উপজেলার ইশিবপুর ইউনিয়নের মধ্য শাখারপাড় গ্রামের আব্দুল গনি মাতুব্বরের বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালান। এ সময় তারা বাড়ির লোকজনকে পিটিয়ে আহত করে স্বর্ণালঙ্কারসহ মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে যান।

গোলাম রাব্বানীকে প্রধান আসামি করে এবং আরও ৮ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ২৫ থেকে ৩০ জনকে মামলায় আসামি করা হয়।

বাদীপক্ষের আইনজীবী ফায়জুর রহমান হিরু বলেন, আদালত দুই দফা আদেশের শুনানির দিন ধার্য করেও কোনো আদেশ দেননি। সোমবার বিকেলে অভিযোগটি খারিজ করে দেন। আমরা এ আদালতে ন্যায়বিচার পাইনি। আদেশের নকল কপি পেয়ে উচ্চ আদালতে অভিযোগ দেব। বিবাদী প্রভাবশালী হওয়ায় অভিযোগটি খারিজ করেছেন বলে আমার ধারণা।

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা গোলাম রাব্বানী জানান, আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানির চেষ্টা করেছিল একটি প্রভাবশালী মহল। কিন্তু আদালতে তা মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় খারিজ হয়ে গেছে। যারা আমাকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চেয়েছিল, তাদের বিরুদ্ধে আমি পুনরায় অভিযোগ দেব।

২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপে ইউপি নির্বাচনে মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার ইশিবপুর ইউনিয়নে গোলাম রব্বানীর মামা সালাহ উদ্দিন আহমেদ চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। গোলাম রাব্বানী গাংকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গেলে প্রতিপক্ষ মোশারফ মোল্লার লোকজন ছুরি গিয়ে কোপ দেয়। এতে রাব্বানীর ডান হাতের দুটি আঙুল কেটে যায়। এ ঘটনায় রাজৈর থানায় হত্যাচেষ্টা মামলা হয়েছে। এতে মোশারফ মোল্লার ছেলেসহ দুজন গ্রেফতার হয়ে জেল-হাজতে রয়েছেন। অব্দুল গণি মাতুব্বর মোশারফ মোল্লার কর্মী ও সমর্থক। এছাড়া তার মামলায় এক নম্বর সাক্ষী মোশারফ মোল্লা নিজেই।

বাংলাদেশ সময়: ২২২২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২২
এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa