ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১১ বৈশাখ ১৪৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

দেশকে এগিয়ে নিতে ক্রীড়াকে তৃণমূলে ছড়িয়ে দিতে হবে: আ জ ম নাছির 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২, ২০২৩
দেশকে এগিয়ে নিতে ক্রীড়াকে তৃণমূলে ছড়িয়ে দিতে হবে: আ জ ম নাছির  আ জ ম নাছির উদ্দিন

ফেনী: দেশকে বিশ্বের মানচিত্রে এগিয়ে নিতে দেশের ক্রীড়াঙ্গনকে তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও বিসিবি পরিচালক আ জ ম নাছির উদ্দিন।  

সোমবার (২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় মরহুম খায়রুন আনোয়ার পেয়ারু জিমনেসিয়ামে বীর মুক্তিযোদ্ধা ক্যাপ্টেন শেখ কামাল জাতীয় জুনিয়র (অনুর্ধ্ব ১৪ ও ১৮) চ্যাম্পিয়নশীপের ফাইনাল ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এসময় তিনি বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন।

তিনি বলেন, বর্তমানে দেশ উন্নয়নের রোল মডেল। উন্নত বাংলাদেশ গড়তে হলে ক্রীড়াকেও এগিয়ে নিতে হবে। প্রধানমন্ত্রী ক্রীড়াবিদদের সম্মাননা জানান। খেলা দেখতে যান, খোঁজখবর রাখেন। যা ক্রীড়াবিদদের জন্য অনেক বড় সুযোগ। এ সুযোগ সবাইকে নিতে হবে। নতুন প্রজন্ম যাতে অনৈতিক কাজ থেকে বিরত থেকে ভালো কাজে সম্পৃক্ত থাকে তার জন্য তাদের খেলাধুলাতে উৎসাহিত করতে হবে এবং তৃণমূল পর্যায়ে খেলাকে ছড়িয়ে দিতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে যেভাবে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন ক্রীড়াকেও এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। দেশের ক্রীড়াঙ্গনের জন্য তিনি কাজ করছেন এবং তার সুফল দেশের ক্রীড়া ইতোমধ্যে পাচ্ছে সব ডিসিপ্লিনে। সে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে ক্রীড়া সংগঠকদের দায়িত্ব নিতে হবে।

খেলোয়াড়দের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক র‍্যাংকিং এ যে জায়গায় রয়েছে তা থেকে আরও উন্নীত করার জন্য খেলোয়াড়দের দায়িত্ব নিতে হবে। খেলোয়াড়দের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিতে ফেডারেশন সবসময় কাজ করবে।

তিনি বলেন, নিয়মিত প্রশিক্ষণ না নিলে অনেকের প্রতিভা থাকলেও ভালো করতে পারে না। প্রতিষ্ঠিত খেলোয়াড় হিসেবে গড়ে তুলতে হলে অভিভাবকদের ও সহযোগিতা করতে হবে। যেকোনো খেলায় প্রতিভা থাকলে তাকে খেলতে দিতে হবে কারণ সে দেশের একজন সম্পদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি আবু সেলিম মাহমুদ-উল হাসান বলেন, এ টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য দীর্ঘদিন যাবত প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল। জাতীয় মানের টুর্নামেন্ট করার জন্য সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল। সকলের আন্তরিকতায় তা সম্ভব হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাডমিন্টন ফেডারেশন ফেনীর এ আয়োজনে খুবই সন্তুষ্ট। তারা আমাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, টুর্নামেন্টকে ঘিরে মেয়ে খেলোয়াড়দের নিরাপত্তাসহ খেলার রেফারিংয়ের মান সবকিছু জাতীয় মানের ছিল। ফেনীতে আন্তর্জাতিক ভেন্যু হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য আমাদের এ প্রয়াস। আমাদের সে সক্ষমতা রয়েছে ভবিষ্যতেও চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

ফেনী সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও টুর্নামেন্ট আয়োজক কমিটি আহ্বায়ক শুসেন চন্দ্র শীলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফেনী পৌরসভা মেয়র মো. নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীন মোহাম্মদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মাসুদুর রহমান, জেল ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন বাহার।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোষাধ্যক্ষ দেলওয়ার হোসেন ডালিমের সঞ্চালনায় জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য বিভিন্ন জেলা থেকে আগত খেলোয়াড়সহ অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ছেলেদের অনুর্ধ্ব-১৪ তে একক ইভেন্টে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ হয়েছে চট্টগ্রাম। মেয়েদের অনুর্ধ্ব-১৪ তে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চট্টগ্রাম, রানার্সআপ হয়েছে শেরপুর। অনুর্ধ্ব-১৪ মেয়ে এককে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে পাবনা রানার্সআপ হয়েছে শরিয়তপুর।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০২, ২০২৩
এসএইচডি/এসএ 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।