ঢাকা, রবিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২১ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

২৪ বছর পর যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আটক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১২১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩, ২০২৩
২৪ বছর পর যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আটক

মানিকগঞ্জ: মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার চাঞ্চল্যকর নবু প্রামাণিক হত্যা মামলার দীর্ঘ ২৪ বছর বিভিন্ন ছদ্মবেশে পলাতক যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি মো. মজিবর (৬০)কে সোমবার (২ জানুয়ারি) রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানাধীন আদাবর এলাকায় থেকে আটক করে র‌্যাব-৪।

মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) সকালের দিকে নবু প্রামাণিক হত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে আটক করেছে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন মানিকগঞ্জ সিপিসি-৩ র‌্যাব-৪ এর কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার মোহাম্মদ আরিফ হোসেন।

 

সাজাপ্রাপ্ত আসামি মজিবর মানিকগঞ্জ জেলার সদর থানাধীন রাজনগর এলাকায় বসবাস করতেন।  

জানা যায়, ১৯৯৮ সালে ফুটবল খেলা নিয়ে ভিকটিম নবু প্রামাণিকের ছেলে মো. বাদশার সঙ্গে আসামি মো. মজিবরের চাচাতো শ্যালক মো. বরকতের সঙ্গে বিরোধ বাধে। এ সূত্র ধরে ভিকটিম নবু প্রামাণিকের স্ত্রী নুর নাহারের সাথে আসামি মো. মজিবরের স্ত্রী জুলেখার মধ্যেও কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। এক পর্যায়ে ঝগড়া থামানোর জন্য নবু প্রামাণিক চেষ্টা করে। এ সময় ঘটনাস্থলে মো. মজিবর, ছমির, আলতাফ, লেবু, জামাল এবং আব্বাছ দাঁ, লাঠি, শাবলসহ দেশিয় অস্ত্র নিয়ে ভিকটিম নবু প্রামাণিকের উপর অতর্কিতভাবে আক্রমণ করে।  

এক পর্যায়ে আসামি মজিবর নৌকার বৈঠা দিয়ে ভিকটিম নবু প্রামাণিককে মাধায় আঘাত করে গুরুতর জখম করে। এ সময় প্রামাণিক মাটিতে পড়ে গেলে জামাল ও অন্যান্য আসামিদের হাতের থাকা লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়িভাবে তাকে মারধর করে।

ভিকটিমের স্ত্রীর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এসে প্রামাণিককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  

এ ঘটনায় মৃতের স্ত্রী নুর নাহার বাদী হয়ে মজিবরসহ সাত জনকে আসামি করে মানিকগঞ্জ সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মজিবর ব্যতিত বাকি সকল আসামিকে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। মামলা হওয়ার পর থেকেই মজিবর আত্মগোপনে চলে যায়।  

গ্রেফতার আসামিরা ৩ মাস হাজত খেটে ১৯৯৯ সালে জামিনে বের হয়ে আত্মগোপনে চলে যায়। মামলার তদন্ত শেষে তদন্তকারী কর্মকর্তা মামলার আসামি মো. মজিবরকে অভিযুক্ত করে বিজ্ঞ আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন এবং মামলার বাকি ৬ জন আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় চার্জশিট থেকে অব্যাহতি প্রদান করেন।  

পরবর্তীতে চার্জশিটের ভিত্তিতে প্রামাণি হত্যাকাণ্ডে সরাসরি সম্পৃক্ত থাকার অপরাধে মানিকগঞ্জ জেলার বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ অভিযুক্ত আসামি মজিবরকে যাবজ্জীবন সাজা দেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১১১২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৩, ২০২৩
এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।