ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ বৈশাখ ১৪৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

জাতিকে আরও ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৫, ২০২৩
জাতিকে আরও ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

ঢাকা: দুর্নীতি, সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গিবাদ নির্মূলের মাধ্যমে শোষণমুক্ত সমাজ-প্রতিষ্ঠায় বাঙালি জাতিকে আরও ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।  

জাতির পিতার আদর্শ ধারণ করে বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতি এগিয়ে যাবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে রাষ্ট্রপতি তার আহ্বান ও প্রত্যাশার কথা জানান। অধিবেশনটি একাদশ জাতীয় সংসদের ২১তম ও ২০২৩ সালের প্রথম অধিবেশন।  

এই অধিবেশনে সভাপতিত্ব করছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তার ভাষণে বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবিসংবাদিত নেতৃত্বে একটি রক্তক্ষয়ী জনযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা অর্জন করেছি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। স্বাধীন সার্বভৌম এ দেশে জনগণই সব ক্ষমতার উৎস এবং তাদের সকল প্রত্যাশার কেন্দ্রবিন্দু মহান জাতীয় সংসদ।  

জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশে তিনি বলেন,আপনারা জনপ্রতিনিধি, তাই জনস্বার্থকে সবকিছুর ঊর্ধ্বে স্থান দিতে হবে। নতুন প্রজন্মের জন্য একটি নিরাপদ, সুখী, সুন্দর ও উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ উপহার দেওয়া আমাদের পবিত্র কর্তব্য। দুর্নীতি, সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গিবাদ সম্পূর্ণরূপে নির্মূলের মাধ্যমে শোষণমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বাঙালি জাতিকে আরও ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।  

তিনি বলেন, দেশের অগ্রযাত্রাকে বেগবান করতে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর জাতির পিতার আদর্শকে ধারণ করে বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বে জাতি এগিয়ে যাক ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত আত্মমর্যাদাশীল বঙ্গবন্ধুর সমৃদ্ধ ‘সোনার বাংলা’ গড়ার পথে।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তার বক্তব্যে সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরেন। এ সময় রাষ্ট্রপতি নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণসহ সরকারের উন্নয়ন অর্জনে বিশ্বব্যাপী সরকারের প্রশংসার কথাও তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, নিজস্ব অর্থায়নে নির্মিত বাংলাদেশের সক্ষমতা ও গর্বের প্রতীক আইকনিক পদ্মা সেতু ২০২২ সালের ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেন। এর মাধ্যমে দেশের তিন কোটিরও বেশি জনগণ প্রত্যক্ষভাবে উপকৃত হবে। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু টানেলের দক্ষিণ টিউবের নির্মাণকাজ সমাপ্ত হয়েছে। আমি আশাবাদী যে দ্রুতই টানেলটি জনসাধারণের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া সম্ভব হবে।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পররাষ্ট্রনীতির মূলমন্ত্র ‘সবার সাথে বন্ধুত্ব, কারও সাথে বৈরিতা নয়’-এ নীতির ওপর ভিত্তি করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল এবং দূরদর্শী নেতৃত্বে পরিবর্তিত বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে প্রতিবেশী দেশসমূহের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারকরণ, ব্যবসা-বাণিজ্য ও শ্রমবাজার সম্প্রসারণে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের মানবিক সাহায্য প্রদান, নারীর ক্ষমতায়ন এবং জলবায়ু চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্ব বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫২ ঘণ্টা জানুয়ারি ৫, ২০২৩
এসকে/এমইউএম/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।