ঢাকা, সোমবার, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২২ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

মাগুরায় ৮ জনকে দেওয়া হলো রাশিফা অ্যাওয়ার্ড

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৭, ২০২৩
মাগুরায় ৮ জনকে দেওয়া হলো রাশিফা অ্যাওয়ার্ড

মাগুরা: মাগুরায় এবার সাহিত্য, কৃষি, শিক্ষা, খেলাধুলা, চিকিৎসা ও শিল্প-সংস্কৃতি এ ছয়টি ক্যাটাগরিতে আটজনকে রাশিফা অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (০৭ জানুয়ারি) দুপুরে রাউতড়া হৃদয়নাথ স্কুল অ্যান্ড কলেজে এই আটজনকে সম্মাননা ক্রেস, মেডেল ও সনদপত্র বিতরণ করা হয়।

 

ছয়টি ক্যাটগরিতে রাশিফা অ্যাওয়ার্ড পাওয়া আটজন হলেন- শিক্ষায় (মরণোত্তর) নুরুল হুদা, চিকিৎসা ক্ষেত্রে ডা. আব্দুল মোতালেব, সাহিত্যে দুজন যথাক্রমে মো. রাখের আলী শিকদার ও অধ্যাপক মো. আতিয়ার রহমান, শিল্প-সংস্কৃতিতে (মরণোত্তর) শিল্পী ও মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান, খেলাধুলায় (মরণোত্তর) মনিরুল ইসলাম ও কৃষিতে পেয়েছেন দুজন যথাক্রমে মো. নাসির হোসেন ও মো. রবিউল ইসলাম।  

মাগুরা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পংকজ কুমার কুণ্ডু প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তাদের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট, মেডেল ও সনদপত্র তুলে দেন।  

রাউতড়া হৃদয়নাথ স্কুল অ্যান্ড কলেজ ইন্টিগ্রাল ফ্যামিলির (রাশিফা) সভাপতি অধ্যাপক মো. আতিয়ার রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন ৫ নম্বর হাজরাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবজাল হোসেন, সাবেক চেয়ারম্যান মিহির কান্তি বিশ্বাস, বর্তমান চেয়ারম্যান মো. কবির হোসেন ও হৃদয়নাথ পরিবারের সদস্য প্রদীপ কুমার বিশ্বাস প্রমুখ।

অনুষ্ঠান উদ্বোধক ছিলেন রাউতড়া হৃদয়নাথ স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ তপন কুমার ঘোষ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রাশিফার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. অহিদুল ইসলাম।  

এছাড়া অনুষ্ঠানে রাউতড়া হৃদয়নাথ স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এবার এসএসসিতে জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ১৭ কৃতি শিক্ষার্থীকে ক্রেস্ট, সনদ ও স্কুল ব্যাগ দেওয়া হয়।  

আয়োজক কমিটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. অহিদুল ইসলাম জানান, রাশিফা একটি মানবিক সামাজিক আন্দোলনমূলক সংগঠন। ২০১৯ সালে এটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। এ সংগঠন বিগত তিন বছরে প্রায় ২০টি সামাজিক অনুষ্ঠান বাস্তবায়ন করেছে। তার মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ২৫০টি পরিবারকে ২০২০ সালে খাদ্য সহায়তা প্রদান। তাছাড়া মেধাবী ও গরিব শিক্ষার্থীকেও সহায়তা করা হয় এ প্রতিষ্ঠান থেকে।  

তিনি আরও জানান, প্রতি তিন বছর পর পর হাজরাপুর ইউনিয়নের ১৪টি গ্রাম থেকে সাহিত্য, কৃষি, শিক্ষা, খেলাধুলা, চিকিৎসা ও শিল্প-সংস্কৃতি এ ছয়টি ক্যাটগরিতে যারা অসামান্য অবদান রাখবে তাদের আমরা ‘রাশিফা’ অ্যাওয়ার্ড দেব।
  
দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানে বিকেলে ছিল মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে গান, নৃত্য, কবিতা পরিবেশন করে এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। সমগ্র অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৭, ২০২৩
আরএ 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।