ঢাকা, বুধবার, ১১ বৈশাখ ১৪৩১, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১৪ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

হিজলায় ইউপি সদস্যকে হাতুরিপেটা করার অভিযোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১২৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৮, ২০২৩
হিজলায় ইউপি সদস্যকে হাতুরিপেটা করার অভিযোগ

বরিশাল: বরিশালের হিজলা উপজেলায় এক ইউপি সদস্য ও তার ভাতিজাকে অপহরণ করে হাতুরিপেটা করার অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার (৭ জানুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে হিজলা হাসপাতালের সামনে থেকে অপহরণ করা হয় বলে জানান ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা মো. আলাউদ্দিন বেপারী।

হাতুরি পেটায় গুরুতর আহত হয়ে আলাউদ্দিন ও ভাতিজা মো. আব্দুল মন্নান গুরুতর আহত হয়ে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (শেবাচিম) চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আলাউদ্দিন বেপারী (৬৫) উপজেলার হিজলা গৌরবদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য।

তিনি জানান, গত ৪ নভেম্বর হিজলা উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল হয়েছে। কাউন্সিলে তিনি সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও হিজলা-গৌরবদী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম মিলনের সমর্থক ছিলেন। এ কারণে তার উপর ক্ষিপ্ত ছিলো বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ও বড়জালিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন হাওলাদার।

আলাউদ্দিন বলেন, শনিবার বেলা ১১টার দিকে তিনি ও ভাতিজা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে যান। তারপর ২০/২৫ জনের একটি দল তাদের অপহরণ করে। পরে উপজেলা সদরের জামাল দফাদারের বাড়ির সামনে নিয়ে তাদের হাতুরি-পেটা করে।

তিনি আরও জানান, খবর পেয়ে হিজলা থানার পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার কর হয়। এ ঘটনায় মামলা করা হবে বলে জানিয়েছেন আলাউদ্দিন বেপারী।

তাদের উদ্ধার করা হিজলা থানার এসআই মো. সোহরাব বলেন, মেঘনা নদীতে মাছ ঘাট নিয়ে আলাউদ্দিন বেপারীর সঙ্গে বিরোধ রয়েছে। এ নিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে তার মারামারি হয়েছে। সেখানে গিয়ে প্রতিপক্ষের কাউকে পাইনি। আহত ইউপি সদস্য ও তার ভাতিজাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পায়নি।

হিজলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বরজালিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এনায়েত হাওলাদার বলেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম মিলন ও বর্তমান সভাপতি মিলে তাকে হেয় করাসহ তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দিতে অপ-প্রচার করছে।

জমি নিয়ে বিরোধের ঘটনায় হামলার ঘটনা ভিন্নখাতে নেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন এনায়েত হাওলাদার।

বাংলাদেশ সময়: ১১২৩ ঘণ্টা, জানুয়া‌রি ৭, ২০২৩
এমএস/এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।