ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ বৈশাখ ১৪৩১, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

সোনারগাঁয়ে আ.লীগের কর্মী সম্মেলনে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১০

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৮, ২০২৩
সোনারগাঁয়ে আ.লীগের কর্মী সম্মেলনে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ১০

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের জামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কর্মী সম্মেলনের দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।  

কর্মী সম্মেলনে স্লোগান দেওয়াকে কেন্দ্র করে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু ও জামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হামীম শিকদার শিপলুর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এসময় ৪ জন ছুরিকাঘাতে আহতসহ ১০জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ কয়েক দফায় উভয় পক্ষের নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দিলেও তারা বিভিন্ন ভাগে বিভক্ত হয়ে সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়ে। কর্মী সম্মেলনের চেয়ার, টেবিল ও স্টেজ ভাংচুর করে তারা।  
 
জানা যায়, সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের লক্ষ্যে উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় কর্মী সম্মেলনের আয়োজন করে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগ।  

রোববার (৮ জানুয়ারি) বিকেলে জামপুর ইউনিয়নের মালিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে কর্মী সম্মেলনের আয়োজন করে জামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ। এতে জামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হুমায়ুন কবির ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া।  

বিশেষ অতিথি ছিলেন সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল কায়সার, সিনিয়র সহ-সভাপতি প্রকৌশলী মাসুদুর রহমান মাসুম, ডা. আবু জাফুর চৌধুরী বিরু। এছাড়াও আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের নেতারা অতিথি ছিলেন। কর্মী সম্মেলন চলাকালীন বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত থাকার কারণে নেতাকর্মীরা স্কুলের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়েন।  

সম্মেলনের শেষের দিকে স্লোগান দেওয়াকে কেন্দ্র করে মঞ্চের পেছনে ডেকে নিয়ে জামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হামীম শিকদার শিপলুর এক সমর্থককে মারধরের সুত্র ধরে সংর্ঘষ শুরু হয়।
পরে হামীম শিকদার শিপলুর লোকজন উত্তেজিত হয়ে লাঠিসোঠা নিয়ে ধাওয়া করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংর্ঘষ শুরু হয়। এসময় স্বাচিপের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরুর লোকজন শিপলু সমর্থক শিকদার জিহাদ, শিকদার তাসফি, মাহমুদ রহমান রাব্বী, ইমনকে ছুরিকাঘাত ও কাউসার, পলাশ, শাহরিয়ার, তানভীরসহ ১০ জন হয়।
 
এদিকে সংর্ঘষ চলাকালে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ এড়ানো সম্ভব না হওয়ায় তাড়াহুড়ো করে সভা শেষ করে সভাস্থল ত্যাগ করেন অতিথিরা।
জামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শিপলু জানান, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ডা.  আবু জাফর চৌধুরী বিরুর লোকজন তার নেতাকর্মীদের ওপর পরিকল্পিত হামলা করে। এতে ৪ জন ছুরিকাঘাতসহ ১০ জন আহত হয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরুর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি শিপলু চেয়ারম্যানের সমকক্ষ নই। আমি জেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। আমার নেতাকর্মীরা এ হামলার সঙ্গে জড়িত নয়।
 
সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আহসান উল্লাহ বলেন, সংর্ঘষ শুরুর সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ উভয় পক্ষের লোকজনকে ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৮, ২০২৩
এমআরপি/এসএ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।