ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩০ মে ২০২৪, ২১ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

অপহরণের পর নির্যাতন, স্বজনদের শোনানো হচ্ছে আর্তনাদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২৩
অপহরণের পর নির্যাতন, স্বজনদের শোনানো হচ্ছে আর্তনাদ

কক্সবাজার: কক্সবাজারের টেকনাফে অপহৃত চার কৃষকের ওপর নির্যাতন চালিয়ে তাদের আর্তনাদ স্বজনদের শোনানো হচ্ছে। মুক্তিপণ না পেলে হত্যার হুমকি দিচ্ছে অপহরণকারীরা।

 

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) এমন তথ্য জানিয়েছেন টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী।

তিনি জানান, অপহৃত চার কৃষকের মোবাইল ফোন থেকে স্বজনদের ফোনে দফায় দফায় কল করা হচ্ছে। ২৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে তাদের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে অপহরণকারীরা। নির্যাতনে তাদের আর্তনাদ শোনানো হচ্ছে স্বজনদের। এতে তাদের পরিবারের মধ্যে তৈরি হয়েছে উৎকণ্ঠা।

চেয়ারম্যান রাশেদ জানান, অপহরণকারী চক্রের নিরাপদ আস্তানা গহীন পাহাড়ে হলেও লোকালয়ের সব তথ্য তাদের কাছে রয়েছে। পুলিশের ঘটনাস্থলে যাওয়া,  ধারাবাহিক সংবাদ প্রকাশের তথ্য তারা (অপহরণকারী) পাহাড়ে বসে পেয়ে যাচ্ছে। তারা ক্ষুব্ধ।

তিনি জানান, কোথায় মুক্তিপণের টাকা পাঠাতে হবে, কীভাবে পাঠাতে হবে, এখনও এসব জানানো হয়নি। তবে পাহাড় ঘিরে অপহরণকারীদের শক্তিশালী অবস্থান রয়েছে। এরা কখনও পাহাড়ের পূর্ব পাশে হ্নীলা ইউনিয়ন, আবার কখনও পশ্চিম পাশের বাহারছড়া ইউনিয়নে অপহরণের ঘটনা ঘটাচ্ছে। এরা প্রযুক্তিতেও শক্তিশালী।

ঘটনার পর পুলিশের কিছু তৎপরতা দেখা গেলেও বর্তমানে কোন প্রকার তৎপরতা নেই দাবি করে চেয়ারম্যান জানান, স্বজনরা আতঙ্কিত রয়েছে। ধারাবাহিক অভিযান জরুরি।

টেকনাফ থানার ওসি মো. আব্দুল হালিম বলেন, টেকনাফের হ্নীলা থেকে অপহৃত চার কৃষকের পরিবারের সদস্যরা এ পর্যন্ত কোনো অভিযোগ দেননি। প্রয়োজনীয় তথ্যও স্বজনরা দিচ্ছেন না। তবে চেয়ারম্যানের মাধ্যমে যেসব তথ্য পাওয়া যাচ্ছে তার পরিপ্রেক্ষিতে পাহাড়ে দফায় দফায় অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। কিন্তু অপহরণকারীরা ঘন ঘন স্থান পরিবর্তন করে যাচ্ছে।

রোববার ভোরে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের লেচুয়াপ্রাং এলাকা থেকে চার কৃষক অপহরণের শিকার হন। তারা ক্ষেত পাহারা দিচ্ছিলেন। তারা হলেন, টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের লেচুয়াপ্রাং এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে আব্দুস সালাম, গুরা মিয়ার ছেলে আব্দুর রহমান, রাজা মিয়ার ছেলে মুহিব উল্লাহ ও রাজা মিয়ার ছেলে আব্দুল হাকিম। এ নিয়ে গত চার মাসে টেকনাফে ৩১ জনকে অপহরণ করার ঘটনা ঘটেছে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২৩
এসবি/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।