ঢাকা, সোমবার, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২২ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গড়া মানবিক বাংলাদেশকে রক্ষা করতে হবে’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০২৩
‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গড়া মানবিক বাংলাদেশকে রক্ষা করতে হবে’

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গড়া মানবিক বাংলাদেশকে রক্ষা করতে হবে বলে জানিয়েছেন নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধ্যাপক মুজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে স্বামী বিবেকানন্দের ১৬০তম জন্মোৎসব উদযাপন উপলক্ষে বিবেকানন্দ শিক্ষা ও সংস্কৃতি পরিষদ (বিশিসপ) আয়োজিত ‘বর্তমান বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে স্বামী বিবেকানন্দ আরও প্রাসঙ্গিক’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বামী বিবেকানন্দের ভাবাদর্শ আমাদের মহান নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মধ্যে ছিল। বঙ্গবন্ধু সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও মানবতার আদর্শ বজায় রাখতে নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন। বঙ্গবন্ধু সাম্প্রদায়িকতার কাছে আত্মসমর্পণ করেননি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িকতার মধ্যে চলে গিয়েছিল।  

মানবতাবিরোধী কলুষিত সমাজ প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছেন। তার মধ্যেও স্বামী বিবেকানন্দের ভাবাদর্শ ছিল। স্বামী বিবেকানন্দের ভাবাদর্শ ছিল বলেই অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ আজ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। তার মধ্যে মানবিকতা আছে বলেই সব ধর্মের মানুষ নিজ নিজ ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান সুন্দরভাবে পালন করছে। স্বামী বিবেকানন্দের ভাবাদর্শ ও দর্শন সর্বত্র ছড়িয়ে দিতে হবে। মহান মুক্তিযুদ্ধে আমরা ৩০ লাখ মানুষ রক্ত দিয়েছি। কোন রক্ত কোন ধর্মের মানুষের সেটা চিন্তা করিনি। সবাই দেশের জন্য রক্ত দিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গড়া মানবিক বাংলাদেশকে রক্ষা করতে হবে। শপথ নিতে হবে। যে মানবিকতা স্বামী বিবেকানন্দের মধ্যে রয়েছে সে মানবিকতার পথে যদি চলি তাহলে আমাদের মুক্তি সম্ভব।

বিশিসপ বাংলাদেশের সভাপতি অখিল চন্দ্র ভৌমিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- বিশিসপ বাংলাদেশের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও রামকৃষ্ণ মঠের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী পূর্ণত্মানন্দজী মহারাজ, বিশিসপ বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় গভর্নিং বডির সভাপতি জয়ন্ত কুমার দেব, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সদস্য অধ্যাপক ড. চন্দ্রনাথ পোদ্দার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পালি ও বুদ্ধিস্ট স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান ড. নীরু বড়ুয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ড. ফাদার তপন কামিলুস ডি রোজারিও, সারদা সংঘ ঢাকার সাধারণ সম্পাদক, শ্রীমতি মীরা সাহা, বিশিসপ বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক করুণা কিশার চক্রবর্তী। অনুষ্ঠানে বিবেকানন্দ বৃত্তি প্রদান, শিক্ষা উপকরণ বিতরণ ও বার্ষিক প্রকাশনা ‘জ্ঞানদীপ’ এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়। এর পর ‘বিবেকানন্দ সঙ্গীতাঞ্জলি’ পরিবেশিত হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২১২১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০২২
এসকে/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।