ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ-প্রতিযোগিতামূলক হবে: প্রধানমন্ত্রী

শামীম খান, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩১৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০২৩
সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ-প্রতিযোগিতামূলক হবে: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ঢাকা: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিরপেক্ষ এবং প্রতিযোগিতামূলক হবে বলে দলেয় সদস্যদেরকে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনে বিজয়ের জন্য দলের সংসদ সদস্যদের এখন থেকেই মানুষের ধারে গিয়ে ভোট চাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

 

বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) রাতে আওয়ামী লীগের সংসদীয় দলের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ নির্দেশ দেন।   এ সভায় উপস্থিত আওয়ামী লীগের কয়েকজন সংসদ সদস্যের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা যায়।

জাতীয় সংসদ ভবনের নয়তলায় এ সভার সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

সূত্র জানায়, এ সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগামী নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ এবং প্রতিযোগিতামূলক হবে। নির্বাচনে বিজয়ের জন্য এখন থেকেই ভালোভাবে কাজ করতে হবে। বিজয়ের জন্য সংসদ সদস্যদের সবাইকে নিজ নিজ এলাকায় মানুষের কাছে গিয়ে ভোট চাইতে হবে। মানুষের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক রাখতে হবে। মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে আমাদের এই তিন মেয়াদের সরকার যেসব উন্নয়ন কাজ করেছেন সে উন্নয়নগুলো তাদের কাছে সেগুলো তুলে ধরতে হবে।

সূত্র আরও জানায়, সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা দলের সংসদ সদস্যদের সতর্ক করে দিয়ে তিনি বলেছেন, সংসদ সদস্যদেরও সবার তথ্যই তার কাছে আছে। নির্বাচনে মনোনয়ন দেওয়ার সময় এ বিষয়গুলোর ওপর গুরুত্ব দেওয়া হবে।  

তিনি বলেছেন, যারা ভালো কাজ করেছেন, যারা জনগণের কাছে যান। আওয়ামী লীগের উন্নয়নের কথা বলেন, জনগণের কাছে ভোট চান। জনগণের সুযোগ-সুবিধা দেখেন এবং জনগণ যাদেরকে চায় তাদেরকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। আর যাদের এলাকার লোকজনের সাথে যাদের সম্পর্ক নেই, এলাকায় যান না তাদেরকে মনোনয়ন দেওয়া হবে না ৷ এ বিষয়গুলো চিন্তা করে এখন থেকে দলের জন্য কাজ করতে হবে।

এ সময় বিএনপিসহ বিরোধীদের আন্দোলন প্রসঙ্গ অতীতে আন্দোলনের নামে তারা যে অপকর্ম করেছেন তা তুলে ধরতে সংসদ সদস্যদের নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন করলে কোনো বাধা দেওয়া হবে না। তবে আন্দোলনের নামে ২০১৩-১৪ ও ১৫ সালের মতো সহিংসতা ও অগ্নিসংযোগ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাদেরকে কঠোরভাবে দমন করা হবে।

এদিকে সূত্রগুলো জানায়, সভায় একাধিক সংসদ সদস্য সব এলাকায় উন্নয়ন কাজ সমানভাবে হচ্ছে না বলে মন্ত্রীদের নামে অভিযোগ করেছেন। তাদের অভিযোগ, মন্ত্রীরা অন্য এলাকার দিকে তেমন লক্ষ্য না করে শুধু নিজের এলাকার দিকে গুরুত্ব দেন। শুধু নিজের এলাকার দিকে গুরুত্ব না দিয়ে মন্ত্রীদের সব এলাকায় সমানভাবে উন্নয়ন কাজে গুরুত্ব দেওয়ার দাবি ও কেউ কেউ ভাঙাচুরা সড়কগুলো দ্রুত মেরামতের অনুরোধও জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২৩১৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০২৩
এসকে/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।