ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

হেঁটেই সারাদেশ ঘুরলেন ইউসুফ, টার্গেট বিশ্বরেকর্ড

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২০৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০২৩
হেঁটেই সারাদেশ ঘুরলেন ইউসুফ, টার্গেট বিশ্বরেকর্ড রাজবাড়ী জেলার ইউসুফ ইকবাল

রাজবাড়ী: সচেতনতামূলক স্লোগানে সবাইকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানানোর উদ্দেশে হেঁটে ৬৪ দিনে দেশের ৬৪টি জেলা ভ্রমণ শেষ করেছেন রাজবাড়ী জেলার ইউসুফ ইকবাল (২২)।

বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজবাড়ীর শহিদ খুশি রেলওয়ে ময়দানের কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে এসে তার যাত্রা শেষ করেন।

এ সময় তাকে অনেক সামাজিক সংগঠন, বন্ধু-বান্ধব,আত্মীয়-স্বজন ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

তরুণ এ উদ্যোক্তা মো. ইউসুফ ইকবাল রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলার রতনদিয়া ইউনিয়নের তোফাদিয়া গ্রামের মো. দেলোয়ার মণ্ডলের ছেলে।

২০২২ সালের ১০ নভেম্বর কক্সবাজার কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার থেকে তিনি হেঁটে আনুষ্ঠানিকভাবে দেশের ৬৪ জেলা ভ্রমণের জন্য যাত্রা শুরু করেন।

মো. ইউসুফ ইকবাল বাংলানিউজকে বলেন, আমি হেঁটে ৬৪ জেলা ভ্রমণ শেষে আজ বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে যাত্রা শেষ করেছি। এর আগে, ১০ নভেম্বর কক্সবাজার কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে হাঁটা শুরু করি। আমি আমার নিজস্ব অর্থায়নে এ হাঁটার যাত্রা শুরু করি। আমার এলাকার বড় ভাই ও নিজের উদ্যোগে এ যাত্রা শুরু করি। ৬৪ জেলায় হাঁটার তিন স্লোগান নিয়েই এ যাত্রা। চলতি পথে মাদকের ভয়াবহতা, রক্তদানে উৎসাহ ও গাছ না কাটা নিয়ে তিনটি বিষয়ে মানুষকে সচেতন করেছি।  

তিনি আরও বলেন, আমি ৬৪ দিনে তিন হাজার ৩৬০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করেছি। আমি এক দিনে সর্বোচ্চ হেঁটেছি ৭০ কিলোমিটার এবং সর্বনিম্ন ২৫ কিলোমিটার। গড়ে দিনে ৫২ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করি। ৬৪ দিনের এ মিশনে আমি পথে তেমন কোনও প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হইনি। আমি যে জেলায় গেছি সেখানে মানুষ আমাকে সহযোগিতা করেছে। এমনকি আমি ৬৪ জেলের মাটি সংগ্রহ করে এনেছি। ৬৪ দিনে যারা সহযোগিতা করেছে তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। আমার টার্গেট হেঁটে হিমালয়ে যেতে চাই এবং হাঁটার বিশ্বরেকর্ড গড়তে চাই।

বাংলাদেশ সময়: ১২০৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০২৩
জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।