ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

কিশোরগঞ্জে ভারতীয় পণ্যসহ আটক ৪

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০২৩
কিশোরগঞ্জে ভারতীয় পণ্যসহ আটক ৪ ভারতীয় পণ্যসহ আটক ৪ ব্যক্তি

কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলায় বিপুল পরিমাণ ভারতীয় শাড়ি, লেহেঙ্গা, তেল, ফেসওয়াশ ও ওষুধসহ ৪ চোরাকারবারিকে আটক করেছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা।

শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে কিশোরগঞ্জ র‌্যাব ক্যাম্প থেকে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়।

আটকরা হলেন-সুনামগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার কান্দাপাড়া (নারায়নতলা) এলাকার মৃত আব্দুল মোতালিবের ছেলে মাসুক মিয়া (২৪), কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার খাকশ্রী এলাকার সুবেদ আলীর ছেলে মো. কুতুব উদ্দিন (৪০), সুনামগঞ্জ জেলার শাল্লা উপজেলার মামুদনগর এলাকার মো. মকসুদ আলীর ছেলে মো. আক্তার হোসেন (৩২) ও একই এলাকার সুরুজ আলীর ছেলে আবু সিদ্দিক (৩২)।  

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শুল্ক কর ফাঁকি দিয়ে ভারত থেকে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় শাড়ি, লেহেঙ্গা, তেল, ফেসওয়াশ ও ওষুধ এনে গুদাম ঘরে মজুদ করে রাখা হয়েছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে করিমগঞ্জ উপজেলার বালিখোলা বাজার ঘাট সংলগ্ন কুতুব উদ্দিনের দোকানে অভিযান পরিচালনা করে কিশোরগঞ্জ র‌্যাবের দুইটি দল।  

এসময় ওই ৪ চোরাকারবারিকে আটক করা হয়। পরে দোকানের গুদাম ঘর তল্লাশি করে ২ হাজার ৯৬৮টি ভারতীয় শাড়ি, ৩৯৯টি ভারতীয় লেহেঙ্গা, ২ হাজার ১৯২টি ভারতীয় ডাবর আমলা তেলের বোতল, ২ হাজার ৫২০টি হিমালয়া নিম ফেসওয়াশসহ টুথপেস্ট, ৩ হাজার ৩৬০টি বোরোলিন এন্টিসেপ্টিক ক্রিম (ওষুধের কৌটা), ৮ হাজার ৬৪০ পিস কাবেরি মেহেন্দি ও পণ্য বিক্রির ৪৪ হাজার ৯০০ টাকা উদ্ধার করে জব্দ করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য এক কোটি ৫ লাখ ৬৪ হাজার ৬৮০ টাকা। এসব পণ্য বাংলাদেশ সরকারের শুল্ক কর ফাঁকি দিয়ে ভারত থেকে আমদানি করা হয়েছে।

র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২ কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মো. শাহরিয়ার মাহমুদ খান জানান, অভিযানে আটকের পর ৪ চোরাকারবারির বিরুদ্ধে করিমগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৫ ঘণ্টা, ১৩ জানুয়ারি, ২০২৩
জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।