ঢাকা, শনিবার, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

চোর সন্দেহে গণপিটুনি, দুই দিন পর মৃত্যু যুবকের

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২৩
চোর সন্দেহে গণপিটুনি, দুই দিন পর মৃত্যু যুবকের ছবি: প্রতীকী

কুমিল্লা: কুমিল্লায় চোর সন্দেহে বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) ভোরে আশিকুর রহমান (১৯) নামে এক যুবককে গণপিটুনি দেয় এলাকাবাসী। এরপর দুই দিন বাড়িতে চিকিৎসাধীন থাকার পর অবস্থার অবনতি হওয়ায় শনিবার (১৪ জানুয়ারি) ভোরে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আশিকুর রহমান চান্দিনা উপজেলা সদরের মহারং এলাকার বাবুর্চি মিজানুর রহমানের ছেলে। পেশায় রিকশা চালক ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার ভোরে চান্দিনা-বাগুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন একটি দোকানের টিউবওয়েলের ওপরের অংশ চুরির অভিযোগে তাকে আটক করে ১৫-২০ জন তাকে গণপিটুনি দেয়। পরে স্থানীয়রা তাকে  উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে।

জানা গেছে, তাকে উদ্ধারের পর হাসপাতালে নেওয়ার কথা বললে পুলিশের ভয়ে রাজি হয়নি। পরে বাধ্য হয়েই তাকে বাড়িতে পরিবারের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়। এদিকে শনিবার ভোরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। এ সময় সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তখন পরিবারের সদস্যরা জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ নম্বরে কল করলে পুলিশ এসে হাসপাতাল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাহাবুদ্দীন খান জানান, ঘটনাটি চান্দিনা বাসস্ট্যান্ড হলেও সেটি দেবিদ্বার উপজেলাধীন বাগুর শান্তিনগর সীমান্তে পড়েছে। যেহেতু আমরা ‘৯৯৯’ থেকে কল পেয়ে চান্দিনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছি, তাই ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছি। এখানে সীমান্ত জটিলতা রয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ নির্দেশনা দিলে এবং নিহতের পরিবারের লিখিত অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২৩
এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।