ঢাকা, শনিবার, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারণে বাঁধ টেকসই হয় না: প্রতিমন্ত্রী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২৩
অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারণে বাঁধ টেকসই হয় না: প্রতিমন্ত্রী পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক

ঢাকা: পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক বলেছেন, জেলা প্রশাসকদের আমরা নির্দেশনা দিয়েছি, অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে। কারণ আমরা নদীতে বাঁধ নির্মাণ করি।

কিন্তু অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারণে বাঁধগুলো টেকসই হয় না, ধসে পড়ে যায়।  

তিনি বলেন, অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের বিষয়ে তীক্ষ্ণ দৃষ্টি রাখতে তাদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছি। সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ, আপনারাও বিষয়টির মানুষের কাছে তুলে ধরবেন। যাতে সবার মধ্যে সচেতনতা বাড়ে।

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের তৃতীয় দিনের দ্বিতীয় অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নদীমাতৃক দেশ হলেও আমাদের পানি নিয়ে অনেক সমস্যা আছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশে নদীভাঙন ও বন্যার প্রবণতা বেড়েছে। গত বছর আমরা দেখেছি গ্রামাঞ্চলে আগাম বন্যা হয়েছে। তারপরও আমরা ফসলের ক্ষতি হতে দিইনি। সতর্ক ব্যবস্থা নিয়েছি।

তিনি বলেন, সব জেলায় বালুমহাল রাখা হয়। কারণ আমাদের প্রয়োজনেই বালুটা উত্তোলন করতে হয়। দেশের উন্নয়ন কাজে বালু দরকার পড়ে। কিন্তু পানি উন্নয়ন বোর্ড যেখানে বালুমহাল ঘোষণা করবে, সেখান থেকেই কেবল বালু উত্তোলন করা যাবে। এতে একদিকে আমরা বালুর প্রয়োজন মেটাতে পারব, অন্যদিকে নদীভাঙনও রোধ করতে পারব।

কয়েকজন ডিসি নিজ এলাকার নদীভাঙনের কষ্টের কথা বলেছেন জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমরা কাজ করে যাচ্ছি, কিন্তু বৈশ্বিক মন্দার কারণে ধীরগতিতে হচ্ছে। কোনো এলাকা থেকে যখন সমস্যার কথা বলা হয়, তখন সমীক্ষা চালিয়ে সেই কাজ করি। না হলে আমাদের প্রকৌশলীদের ওপর দোষ পড়বে। প্রকৌশলীদের বলেছি, যাতে তারা স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলে তাদের সমস্যাগুলোর সমাধান করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২৩
জিসিজি/আরএইচ 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।