ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪৩০, ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

অভিযানের খবরে লাপাত্তা, ডেকে এনে জরিমানা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩০৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩, ২০২৩
অভিযানের খবরে লাপাত্তা, ডেকে এনে জরিমানা

কুমিল্লা: হাসপাতালে হাসপাতালে অভিযান শুরু হয়েছে, এমন খবরে ভয়ে কুমিল্লার একটি হাসপাতাল বন্ধ করে সবাই পালিয়ে যান।  

মঙ্গলবার (৩ অক্টোবর) কুমিল্লা নগরীর টমছমব্রিজে অবস্থিত কুইন্স ডিজিটাল লিমিটেড হাসপাতালে এমন ঘটনা ঘটে।

 

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও জেলা প্রশাসনের অভিযানের পর হাসপাতালটির নানা জালিয়াতির কথা সামনে আসে। এসময় হাসপাতালটিকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করে সিলগালা করা হয়।  

অভিযান সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালটির কোনো লাইসেন্স ছিল না। নিয়ম না মেনেই সাত তলা আবাসিক ভবনের পাঁচটি ফ্লোরের ফ্ল্যাটগুলোকে কেবিন ও ওয়ার্ড বানিয়ে কুইন্স ডিজিটাল হাসপাতাল নামের কথিত এই সেবা কেন্দ্র খোলা হয়েছিল। দীর্ঘদিন ধরে নগরীর এই গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় কোনো ডিউটি ডাক্তার ছাড়াই চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছিল প্রতিষ্ঠানটি। হাসপাতালে অভিযানের ভয়ে সকাল থেকেই কর্তৃপক্ষ হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান। অভিযানের সময়ও কাউকে পাওয়া যায়নি। হাসপাতালে ছিল না কোনো রোগী, চিকিৎসক ও দায়িত্বরত কর্মকর্তা। কেয়ারটেকার হাসপাতালের সামনে বসা ছিলেন। এসময় বিভিন্ন মাধ্যমে সহযোগিতা নিয়ে ওই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ডেকে এনে এর কারণ জিজ্ঞেস করা হয়। কর্তৃপক্ষ কোনো কাগজপত্র না দেখাতে পারায় দুই লাখ টাকা জরিমানা ও প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করা হয়।  

অভিযানে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. মো. মেহেদী হাসান ও ডা. মো. আবদুল কাইয়ুম। অভিযানে নেতৃত্ব দেন কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমদাদুল হক তালুকদার।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার ডা. মো. মেহেদী হাসান জানান, হাসপাতালটি অনুমতি ছাড়া অস্ত্রোপচার, রোগী ভর্তি, বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে আসছিল। এছাড়াও হাসপাতালে গিয়ে কোনো ডিউটি ডাক্তার এবং দায়িত্বশীল কাউকে পাওয়া যায়নি। এমন ঘটনায় তাদের দুই লাখ টাকা জরিমানা ও প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২৩০৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩, ২০২৩
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।