ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

বাগাতিপাড়ায় ভ্যানচালককে কুপিয়ে হত্যা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫২৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
বাগাতিপাড়ায় ভ্যানচালককে কুপিয়ে হত্যা প্রতীকী ছবি

নাটোর: নাটোরের বাগাতিপাড়ায় মো. মোহন হোসেন (২২) নামে এক ভ্যানচালককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১০টার দিকে জেলার বাগাতিপাড়া ও রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সীমান্ত এলাকার খাগোরবাড়িয়া এলাকায় তাকে কুপিয়ে আহত করা হয়।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) সকালে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

নিহত মোহন হোসেন বাগাতিপাড়া উপজেলার চকমাহাপুর গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে। তিনি পেশায় একজন ভ্যানচালক।  

পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ইজিবাইকের চার্জার ভ্যান মেরামতের জন্য পার্শ্ববর্তী বাঘা এলাকার খাগোরবাড়িয়া বাজারে মকবুল মেকানিকের কাছে যান মোহন। সেখান থেকে বাড়ি ফেরার পথে খাগোরবাড়িয়া এলাকায় তাকে কুপিয়ে জখম করে ফেলে রেখে যায় দুর্বৃত্তরা। স্থানীয়রা টের পেয়ে জখম অবস্থায় মোহনকে উদ্ধার করে বাগাতিপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান এবং সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য রামেক হাসপাতাল থেকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে রেফার করেন। সেখানে নেওয়ার পথে সকালের দিকে মোহনের মৃত্যু হয়।  

নিহতের মা হনুফা বেগম বলেন, প্রায় তিন বছর আগে খাগোরবাড়িয়া গ্রামের জাকির হোসেন নামে এক ব্যক্তি খুন হন। সেই হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে তার ছেলে মোহনকেও হত্যা মামলার আসামি করা হয়। ওই মামলায় এতদিন কারাগারে ছিল মোহন। তবে প্রায় চারমাস আগে মোহন জামিনে মুক্ত হয়।

তিনি আরও বলেন, মোহনকে আসামি করেই নিহত জাকিরের পরিবার থেমে থাকেনি। তারা আদালতেই তার ছেলেকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেন। জামিনে আসার পর থেকে প্রায়ই তার ছেলের ওপর আক্রমণের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন তারা। এবার আগে থেকে পরিকল্পনা করে ছেলেকে কুপিয়ে মেরে ফেলল। যারা মোহনকে নির্মমভাবে কুপিয়ে মেরেছে তাদের আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির দাবি জানাই।

বাগাতিপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নান্নু খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পূর্ব শত্রুতার জেরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখাসহ নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা রুজুর পাশাপাশি আসামিদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।