ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১৮ মহররম ১৪৪৬

জাতীয়

তিস্তা-ধরলা নদীর পাড়ে বানের অবনতি হতে পারে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩২ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২৪
তিস্তা-ধরলা নদীর পাড়ে বানের অবনতি হতে পারে

ঢাকা: তিস্তা, ধরলা, করতোয়াসহ উত্তরাঞ্চলের নদ-নদীর পানি বেড়ে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে।

বুধবার (১০ জুলাই) এমন পূর্বাভাস দিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।

পাউবোর বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী সরদার উদয় রায়হান জানিয়েছেন, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদ-নদীর পানির সমতল হ্রাস পাচ্ছে। ব্রহ্মপুত্র নদের পানির সমতল স্থিতিশীল থাকতে পারে, অপরদিকে যমুনা নদীর পানির সমতল হ্রাস পেতে পারে।

গঙ্গা নদীর পানির সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী তিনদিন পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। অপরদিকে পদ্মা নদীর পানি সমতল স্থিতিশীল আছে, যা অব্যাহত থাকতে পারে।

আবহাওয়া সংস্থাসমূহের তথ্য অনুযায়ী, দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল ও তৎসংলগ্ন উজানে আগামী দুদিনে ভারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় কুড়িগ্রাম, জামালপুর, গাইবান্ধা, বগুড়া, টাঙ্গাইল ও সিরাজগঞ্জ জেলার ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদ-নদী সংলগ্নরনিম্নাঞ্চলের বন্যার পরিস্থিতি ধীর গতিতে উন্নতি হতে পারে।

তবে তিস্তা, ধরলা নদী ও দুধকুমার নদের পানি সমতল সময় বিশেষে বৃদ্ধি পেতে পারে। ফলে তিস্তা ও ধরলা নদীর পানির সমতল কতিপয় পয়েন্টে স্বল্পমেয়াদে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হতে পারে এবং দুধকুমার নদ সংলগ্ন কুড়িগ্রাম জেলার কতিপয় নিম্নাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির সামান্য অবনতি হতে পারে।

আগামী ২৪ ঘণ্টায় দেশের উত্তরাঞ্চলের যমুনাশ্বরী, আপার করতোয়া, আপার আত্রাই, পুর্নভবা, টাঙ্গন এবং ইছামতী-যমুনা নদীসমূহের পানি সমতল সময় বিশেষে বৃদ্ধি পেতে পারে। এই সময়ে দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের আত্রাই নদীর পানি সমতল বাঘাবাড়ী পয়েন্টে হ্রাস পেয়ে নদী সংলগ্ন সিরাজগঞ্জ জেলার নিম্নাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩২ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২৪
ইইউডি/এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।