ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৭ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

মৃত্যু পথযাত্রী শিক্ষকের আঙুলের ছাপ নেওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৪৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৪, ২০২২
মৃত্যু পথযাত্রী শিক্ষকের আঙুলের ছাপ নেওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য মৃত রবীন্দ্রনাথের আঙুলে নীল ছাপ।

কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলায় মৃত্যু পথযাত্রী অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষকের হাতের আঙুলের ছাপ নেওয়ার ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অবশেষে অসুস্থ সেই শিক্ষক রবীন্দ্রনাথ সরকার (৬৪) মৃত্যুবরণ করেছেন।

সোমবার (৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় মৃত শিক্ষকের পুত্রবধূ অঞ্জনা রানি এ ঘটনায় নাগেশ্বরী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নের খামার হাসনাবাদ সেনপাড়া গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে।  

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শিক্ষক রবীন্দ্রনাথ সরকার অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বজনরা সেবা যত্ন করার সময় তার দুই হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলিতে কালি দেখতে পায়। এতে পরিবারের সদস্যদের সন্দেহ হলে নাগেশ্বরী থানায় অভিযোগ করতে গেলে তার মৃত্যু হয়।  

পরিবারের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, তাদের ক্ষয়ক্ষতি এবং সম্পদ আত্মসাতের উদ্দেশ্যে একটি স্বার্থান্বেষী মহল এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। ছাপ নেওয়ার পরে তার রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হয়েছে। তাই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেছেন পরিবারের সদস্যরা।

মৃত রবীন্দ্রনাথ ও রত্না সেন (৪০) নামে দুই মেয়ে রয়েছে। এছাড়া রঞ্জু কুমার সরকার নামে এক ছেলের গত একবছর আগে মৃত্যু হয়েছে। মৃত ছেলের স্ত্রী অঞ্জনা রানি শ্বশুর-শাশুড়ির সংসারে দুই মেয়েকে নিয়ে থাকেন।

মৃত শিক্ষকের পুত্রবধূ অঞ্জনা রানি জানান, অসুস্থ বাবার শরীরে তেল মালিশ করতে গিয়ে তার আঙ্গুলে কালির ছাপ দেখতে পাই। কে বা কারা এটি করেছে আমাদের জানা নেই। তবে, যে এই ঘৃণ্য কাজ করুক আমাদের ক্ষতির জন্য বা সম্পদ হাতিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে করেছে। পরে বিষয়টি নিয়ে নাগেশ্বরী থানায় অভিযোগ দিতে গেলে সন্ধ্যায় বাবার মৃত্যু হয়। বিষয়টি নিয়ে আমরা চিন্তিত, ভবিষ্যতে যাতে কেউ আমাদের কোনো ক্ষতি করতে না পারে এজন্য প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি।  

মৃত শিক্ষকের মেয়ে রত্না রানি জানান, কোনো একটি মহল ভবিষ্যতে আমাদের ক্ষয়ক্ষতিসহ অর্থ সম্পদ হাতিয়ে নেওয়ার জন্য সবার অজান্তে আমার বাবার দুই হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলির টিপ সই নিয়েছেন।
 
নাগেশ্বরী উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান সরকার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, সরেজমিনে গিয়ে মৃত স্কুল শিক্ষকের হাতের আঙুলে কালির ছাপ দেখতে পেয়েছি। তাই পরিবারের লোকজনকে নিয়ে থানায় জিডি করা হয়েছে।

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী থানার (ওসি,তদন্ত) পলাশ চন্দ্র বাংলানিউজকে জানান, এ ব্যাপারে একটি জিডি করেছেন মৃত স্কুল শিক্ষকের পুত্রবধূ। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১১৩৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০২২
এফইএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa