ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

হরিণা ফেরিঘাটে দীর্ঘ যানজট

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট   | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২২
হরিণা ফেরিঘাটে দীর্ঘ যানজট ফেরি, হরিণাঘাট, যানজট, দুর্ভোগ

চাঁদপুর: চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরি রুটের হরিণাঘাট অংশ দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

হরিণাঘাট অংশে পারের অপেক্ষায় আছে কমপক্ষে ৫০০-৬০০ যানবাহন।

সড়কে দীর্ঘ লাইনে যানবাহন থাকায় জেলার আভ্যন্তরীণ যানবাহন চলাচলও ব্যাহত হচ্ছে। পাঁচ মিনিটের পথ ঘণ্টায়ও অতিক্রম করতে পারছে না। বিশেষ করে অসুস্থ রোগী নিয়ে হাইমচর উপজেলা ও সদর দক্ষিণের লোকজন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।  

বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাত টানা ১০ ঘণ্টা কুয়াশা থাকায় ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল এবং চরমোনাই মাহফিলের গাড়ি বেড়ে যাওয়ায় যানজটের সৃষ্টি হয়েছে বলে জানায় বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন সংস্থা (বিআইডব্লিউটিসি)।

শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে হরিণাঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, ফেরিঘাট থেকে পূর্ব দিকে ফরিদগঞ্জ ভাটিয়ালপুর সড়কে যানবাহনের কমপক্ষে তিন কিলোমিটার দীর্ঘ লাইন। মালবাহী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানের কারণে ছোট যানবাহনগুলো চলাচল করতে পারছে না। যানজটের কারণে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী পরিবহনগুলো সদরের নানুপুর বাগাদীর ২৫ কিলোমিটার সড়ক অতিরিক্ত ঘুরে হরিণা ঘাটে আসছে।

সিএনজিচালিত অটোরিকশা যাত্রী মফিজুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, হাইমচর আলগী বাজার থেকে জেলা সদরে চিকিৎসার জন্য রওনা হয়েছেন। কিন্তু যানজটের কারণে সড়কে আটকা পড়ে আছেন। এই সড়কে কোনো ট্রাফিক ব্যবস্থাও নেই।

চট্টগ্রাম থেকে আসা মালবাহী ট্রাক চালক জসিম উদ্দিন বলেন, এ ঘাটে প্রায়ই যানজটের সৃষ্টি হয়। আগের চাইতে গাড়ির সংখ্যাও বেড়েছে। প্রাকৃতিক কোনো দুর্যোগের কারণে ফেরি বন্ধ থাকলে এই জট স্বাভাবিক হতে কয়েকদিন সময় লাগে। শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাত থেকে সড়কে অবস্থান করছি।

বিআইডব্লিউটিসি হরিণা ফেরিঘাট এলাকার ম্যানেজার (বাণিজ্য) আব্দুন নুর বলেন, গত কয়েকদিন যানজট কম ছিল। কিন্তু হঠাৎ করে বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাতে প্রায় ১০ ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। যার ফলে হরিণা ও আলু বাজার অংশে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিদিন প্রায় ২শ’রও অধিক গাড়ি পার হয়। কিন্তু ফেরি বন্ধ থাকায় যানজট বেড়ে গেছে। এছাড়াও চরমোনাই মাহফিলের কারণে আরও প্রায় ৫০টিরও বেশি অতিরিক্ত যাতীবাহী পরিবহন বেড়েছে। তবে আগামী ২-৩ দিনের মধ্যে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হবে।

তিনি বলেন, সড়কে যানজট নিয়ন্ত্রণ করার জন্য আমি আজকে চাঁদপুরের ট্রাফিক ইন্সপেক্টরের (টিআই) সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন খুব শিগগিরই ট্রাফিক পুলিশ দেওয়ার চেষ্টা করবেন।

চাঁদপুর বন্দর ও পরিবহন কর্মকর্তা একেএম কায়সারুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, হরিণা ফেরিঘাটে যানবাহনের সংখ্যা বেড়েছে। আমরা যানজট নিরসনে আরেকটি ফেরিঘাট নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছি। এ বছরই হরিণা এবং আলুবাজার অংশ ঘাট নির্মাণের কাজ শুরু হবে। হরিণাঘাট থেকে ফরিদগঞ্জ ভাটিয়ালপুর সড়কের সংস্কার কাজ চলমান রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২২
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।