ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

আ.লীগকে ক্ষমতা ছেড়ে মাফ চাওয়ার আহ্বান গয়েশ্বরের

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০২৩
আ.লীগকে ক্ষমতা ছেড়ে মাফ চাওয়ার আহ্বান গয়েশ্বরের

সিলেট: অতীতের কর্মকাণ্ডের জন্য আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা ছেড়ে মাফ চেয়ে জনতার কাতারে আসার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

তিনি বলেছেন, ১০ দফা দাবি আদায় করে দেশের মানুষকে মুক্তি দিতে হবে।

কেননা, সরকার ফ্যাসিবাদের সবকিছু জনগণের ওপর চাপিয়ে দিয়েছে।

বুধবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে সিলেটে বিএনপির গণ-অবস্থান কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ফ্যাসিস্ট, দুর্নীতিবাজ, গণতন্ত্রহরণকারী সরকারের পদত্যাগ, অবৈধ সংসদ বাতিল, নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ১০ দফা ও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াসহ দলীয় নেতাদের মুক্তির দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সিলেট বিভাগীয় গণ-অবস্থান কর্মসূচি পালন করে বিএনপি।

এদিন বেলা ১১টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত গণ-অবস্থান কর্মসূচি পালিত হয়। দলটির এই কর্মসূচির সঙ্গে যোগ দেয় সমমনা রাজনৈতিক দলগুলোও।

এসময় বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি প্রস্তাবের প্রতিবাদে ও বিএনপির ১০ দফা দাবি আদায়ে আগামী ১৬ জানুয়ারি দেশব্যাপী বিক্ষোভ-সমাবেশেরও ঘোষণা দেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

এদিন সকাল থেকে নগরের রেজিস্ট্রারি মাঠে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা জড়ো হতে থাকেন। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে এই কর্মসূচি শুরু হয়।

গণ-অবস্থান কর্মসূচিতে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, ছাগল চুরি, গরু চুরি, রিজার্ভ চুরিসহ সব চুরির সঙ্গে আওয়ামী লীগ জড়িত। আওয়ামী লীগ এখন সব চুরের নিরাপদ আশ্রয়স্থল।

কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য কলিম উদ্দিন মিলন, সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী, সিলেট মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকি, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব মিফতাহ সিদ্দিকী, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমদ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট এটিএম ফয়েজ, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, জিয়াউল গনি আরেফিন জিল্লুর, নজিবুর রহমান নজিব, সালেহ আহমদ খছরু, মাহবুব কাদির শাহী, অ্যাডভোকেট রোকশানা বেগম শাহনাজ, সিলেট জেলা বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট হাসান আহমদ পাটোয়ারী রিপন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক আব্দুল আহাদ খান জামাল, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক মাহবুবুল হক চৌধুরী, জেলা বিএনপি নেতা ফখরুল ইসলাম ফারুক, মুহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্গিস, অ্যাডভোকেট বদরুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট আবু তাহের, অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব শাকিল মোর্শেদ, জেলা বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট আল আসলাম মুনিম, মহানগর বিএনপির সদস্য আফজল হোসেন, আবুল কালাম, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব আফসর খাঁন।

উপস্থিত ছিলেন- জেলা বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম শাহপরান, ডা. নাজিম উদ্দিন, অ্যাডভোকেট মোস্তাক আহমদ, শাহিন আলম জয়, আবুল কাশেম, এডভোকেট ওবায়দুর রহমান ফাহমী, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দিনার, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী আহসান প্রমুখ।

এছাড়া বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মী গণ-অবস্থানে অংশ নেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০২৩
এনইউ/এমএইচএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।