ঢাকা, বুধবার, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭ শাবান ১৪৪৫

রাজনীতি

আ.লীগের অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে না: বিএনপি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩২৪ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০২৩
আ.লীগের অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে না: বিএনপি

ঢাকা: সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ক্ষমতাসীনদের আচরণ প্রমাণ করে আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হতে পারে না বলে দাবি করেছে বিএনপি।

মঙ্গলবার (২১ মার্চ) দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এর আগে সোমবার (২০ মার্চ) রাতে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির ভার্চ্যুয়াল সভায় নেতারা এ মন্তব্য করেছেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

সভায় মির্জা ফখরুল বলেন, দলীয় সভায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোর্ট প্রাঙ্গণে সরকারদলীয় আইনজীবী ও পুলিশের ন্যাক্কারজনক হামলা, ভাঙচুর, গ্রেফতার, মিথ্যা মামলা দায়ের এবং ভোট ডাকাতি করে নির্বাচনী প্রহসনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। সভা মনে করে আওয়ামী লীগ পুলিশকে বেআইনিভাবে ব্যবহার করে সুপ্রিম কোর্টের পবিত্রতা ক্ষুণ্ন করেছে।

সভায় হজের প্যাকেজ সর্বনিম্ন টাকার পরিমাণ হজ পালনে ইচ্ছুক ধর্মপ্রাণ সাধারণ মুসলমানদের নাগালের বাইরে হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। সভা মনে করে ভারত ও পাকিস্তানে এ অর্থের পরিমাণ প্রায় অর্ধেকের মতো। সভা হজ প্যাকেজের অর্থের পরিমাণ কমিয়ে সাধারণ নাগরিকদের আর্থিক সক্ষমতার মধ্যে নিয়ে আসার আহ্বান জানানো হয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, দলের স্থায়ী কমিটির সভায় গত ১৯ মার্চ রাতে রাজধানীর বনানী ক্লাব থেকে সিরাজদিখান উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মোমেন আলীসহ প্রায় ৫১ জনকে মিথ্যা অভিযোগে গ্রেফতার ও পরে আদালতে দুদিন রিমান্ড মঞ্জুরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়। সভা মনে করে এ অনির্বাচিত আওয়ামী লীগ সরকার বিরোধী আন্দোলনকে দমন করার জন্য এ ধরনের হীন কৌশলের আশ্রয় গ্রহণ করছে। সভায় অবিলম্বে আটক ব্যক্তিদের নিঃশর্ত মুক্তি ও মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

সভায় গত ১৯ মার্চ পদ্মা সেতুর শিবচর প্রান্তে বাসের ফিটনেস সার্টিফিকেট না থাকা সত্ত্বেও এবং বাসটির রুট পারমিট বাতিল হওয়ার পরেও মহাসড়কে যাত্রী পরিবহন করার ফলে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটার ফলে ২১টি প্রাণ ঝড়ে যাওয়ায় গভীর শোক ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয় এবং পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়। সভা মনে করে এ দুর্ঘটনার জন্য সরকারের সড়ক বিভাগ সম্পূর্ণ দায়ী। এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনার সব দায় নিয়ে সেতুমন্ত্রীর অবিলম্বে পদত্যাগ করা উচিত।

দলের ভার্চ্যুয়াল সভায় উপস্থিত ছিলেন- ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, সালাহ উদ্দিন আহমেদ (ভারত থেকে), সেলিমা রহমান ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২২ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০২৩
এমএইচ/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।