ঢাকা, সোমবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

খেলা

প্রীতি ম্যাচের আগে যুক্তরাষ্ট্রকে ইরানের হুমকি

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৮, ২০২২
প্রীতি ম্যাচের আগে যুক্তরাষ্ট্রকে ইরানের হুমকি

ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের বৈরিতার কথা কারও অজানা নয়। এর মাঝেই প্রীতি রেসলিং ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে দুই তথাকথিত 'শত্রু' দেশের জাতীয় দল।

কিন্তু ম্যাচের আগে ইরানের পক্ষ থেকে স্লোগান তোলা হলো 'আমেরিকা নিপাত যাক'! আর সেই স্লোগান দিলেন খোদ ইরানের রেসলিং ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট আলিরেজা দাবির।

সম্প্রতি ইরানের এক টেলিভিশন চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমন স্লোগান দেন তিনি। আগামী ফেব্রুয়ারিতে টেক্সাসে অনুষ্ঠিত হবে ওই রেসলিং ম্যাচ।  

২০০০ সিডনি অলিম্পিকে ফির-স্টাইল রেসলিংয়ে ইরানের হয়ে সোনা জেতা আলিরেজা দাবির বলেন, "আমরা সবসময় 'আমেরিকা নিপাত যাক' স্লোগান দিই। তবে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে সেটা কাজের সময় করে দেখানো। একজন ডাক্তার, যিনি এমনকি টাই পরতে পারেন, কিন্তু তিনি হয়তো তার কাজটা ভালোভাবে করছেন। তিনি বলছেন 'আমেরিকা নিপাত যাক'। অনেকে অনেক কথা বলে, কিন্তু কাজের বেলায় তেমন কিছুই করেন না। আমাদের এটা কাজের ক্ষেত্রে প্রমাণ করতে হবে। "

দাবিরের আমেরিকার ধ্বংস কামনার প্রায় এক মাস আগে ওই প্রীতি রেসলিং ম্যাচের প্রস্তাব করা হয়। ম্যাচটি আগামী ১২ ফেব্রুয়ারি টেক্সাসের আর্লিংটনে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। কিন্তু এর আগে ইরানের রেসলিং ফেডারেশনের প্রেসিডেন্টের অমন স্লোগান পছন্দ হচ্ছে না অনেকের।  

আলিরেজার স্লোগানের ব্যাপারে ইরানের জাতীয় গ্রেকো-রোমান দলের সাবেক কোচ সর্দার পাশাই (ইরানি বংশোদ্ভুত মার্কিন নাগরিক) এক সংবাদমাধ্যমকে বলেন, "একজন রেসলার এবং জাতীয় দলের সাবেক কোচ হিসেবে এমন স্লোগান শোনা আমার জন্য যন্ত্রণাদায়ক। যেখানে আমিসহ আরও অনেক অ্যাথলেটকে ইরানের সরকার জোর করে দেশত্যাগে বাধ্য করে, তখন সেখানকার রেসলিং ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট আলিরেজা দাবির, যার আমার যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিন কার্ড আছে, তিনি কিনা 'আমেরিকা নিপাত যাক' বলছেন। "

পাশাই একজন সাবেক গ্রেকো-রোমান রেসলিং চ্যাম্পিয়ন, যিনি একজন মানবাধিকারকর্মীও। তিনি একটি সংস্থা পরিচালনা করেন, যার নাম 'ইউনাইটেড ফর নাভিদ' নামে পরিচত। ইরানের সাবেক গ্রেকো-রোমান রেসলিং চ্যাম্পিয়ন নাভিদকে ২০১৮ সালে দেশের রাজনৈতিক ও আর্থিক দুর্নীতির বিরুদ্ধে হওয়া বিক্ষোভে অংশ নেওয়ায় মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। তার সুবিচার চাইতেই লড়াই করছে পাশাইয়ের সংস্থা। তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, ইরানি সরকারের প্রিয়পাত্র আলিরেজার মতো লোক কি করে যুক্তরাষ্ট্রে বিনা বাধায় ঘুরে বেড়ান?

১৯৯৮ ওয়ার্ল্ড রেসলিং চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জেতা দাবির ২০১৯ সালে ইরানের রেসলিং ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। দাবিরের মতো লোকদের যুক্তরাষ্ট্র প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার দাবি জানান পাশাই। এমনকি টোকিও অলিম্পিকে অংশ নেওয়া ইরানের বিপ্লবী গার্ডের (আইআরজিসি) সদস্য শুটার জাভেদ ফরৌগীকে সন্ত্রাসী আখ্যা দেন তিনি। ফরৌঘির বিরুদ্ধে অভিযোগ, যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ বাহিনীকে সহায়তা করেছেন তিনি। যুক্তরাষ্ট্র আইআরজিসিকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে ঘোষণা করেছে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের রেসলিং ফেডারেশনের পক্ষ থেকে আলিরেজার ওই শ্লোগানের ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করা হয়নি। যদিও ব্যক্তিগতভাবে বেশ কয়েকজন রেসলার মুখ খুলেছেন। তবে ইরানে 'আমেরিকা নিপাত যাক' শ্লোগান বেশ পরিচিত। ২০২০ সালের জানুয়ারিতে ইরানের বিশেষ বাহিনী রেভ্যুলশনারি গার্ডের অভিজাত বাহিনী কুদস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলাইমানি যুক্তরাষ্টের ড্রোন হামলায় নিহত হওয়ার পর তার স্মরণসভায় এধরনের স্লোগান দিতে দেখা যায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৮, ২০২২
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa