ঢাকা, শনিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৫ মে ২০২৪, ১৬ জিলকদ ১৪৪৫

কৃষি

নওগাঁয় আড়াই বছরেই অকেজো ১৯ কোটি টাকার রাবার ড্যাম

তৌহিদ ইসলাম, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৫৭ ঘণ্টা, মার্চ ৯, ২০২৩
নওগাঁয় আড়াই বছরেই অকেজো ১৯ কোটি টাকার রাবার ড্যাম

নওগাঁ: কৃষি প্রধান এ দেশে কৃষিকে এগিয়ে নিতে সরকার নানাবিধ উন্নয়নমূলক কাজ করছে। কৃষিকে উন্নত এবং আধুনিক করার লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে সরকার।

 
 
তথ্যপ্রযুক্তির ছোঁয়া লেগেছে কৃষি কাজে। তবে কৃষি এবং কৃষকের জন্য সরকারের নেওয়া উদ্যোগগুলো কতটা কাজে আসে কৃষকের- এমন প্রশ্ন থেকেই যায়।

নওগাঁর আত্রাই উপজেলার শুটকিগাছায় আত্রাই নদীতে বসানো হয়েছে রাবার ড্যাম। মেশিনের সাহায্যে ড্যাম ফুলিয়ে ধরে রাখা হয় নদীর একপাশের পানি। যা শুষ্ক মৌসুমে সেচের কাজে ব্যবহার করেন কৃষকরা। নদীর পানি ধরে রেখে সেই পানিকে কৃষিসহ নানা কাজে ব্যবহারের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ১৯ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করে ড্যামটি। কিন্তু নির্মাণের কয়েক বছরের মাথায় নষ্ট হয়ে পড়েছে রাবার ড্যামটি। ফলে প্রকল্পটির সুবিধা পাচ্ছেন না কৃষক।

শুটকিগাছা এলাকার কৃষক আব্দুল কালাম বাংলানিউজকে জানান, একটা সময় শুষ্ক মৌসুমে পানির অভাবে এ এলাকায় চাষাবাদ করা যেত না। নদীর পানি নেমে যেত দ্রুতই, ফলে গভীর নলকূপের ওপর কৃষকদের নির্ভর করতে হতো। তবে রাবার ড্যাম নির্মাণের পর দুই বছর ঠিকমতো এর সুবিধা ভোগ করেছেন কৃষকরা। কিন্তু এরপর তিন বছর ধরে নষ্ট হয়ে পড়ে আছে রাবার ড্যামটি। ড্যামটি নষ্ট হওয়ায় নদীতে আর পানি ধরে রাখা যায় না। শুষ্ক মৌসুম আসার আগেই নদীর পানি নেমে যায়। ফলে চাষাবাদে ব্যাপক ঝামেলায় পড়তে হয় কৃষকদের।

রাবার ড্যামটি নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১২ সালে। এরপর বেশ কয়েকবার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানও পাল্টানো হয়েছে। শেষমেষ ২০১৭ সালে ড্যামটি বুঝিয়ে দেওয়া হয় স্থানীয় একটি পরিচালনা কমিটিকে।

পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোসলেম উদ্দিন আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, এত টাকা ব্যয়ে ড্যামটি নির্মাণ করা হয়েছে, কিন্তু প্রকল্পটি এত অল্প সময়ে নষ্ট হবে তা বোঝা যায়নি। তিন বছর হচ্ছে রাবার ড্যামটি নষ্ট হয়ে পড়ে আছে। এটি সচল করার কোনো পদক্ষেপ নেয়নি কর্তৃপক্ষ। আমরা কমিটির পক্ষ থেকে দফায় দফায় যোগাযোগ করেছি উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কাছে। জেলা এলজিডি অফিসেও বেশ কয়েকবার যাওয়া হয়েছে। কিন্তু নষ্ট রাবার ড্যাম সচল করতে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। আমরা চাই শিগগিরই এ রাবার ড্যাম সচল করা হোক।  

নওগাঁ এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মো. তোফায়েল আহমেদ বাংলানিউজকে জানান, বেশ কিছু দিন আগে রাবার ড্যাম পরিদর্শনের জন্য ঢাকা থেকে একটি টিম এসেছিল। এরপর নষ্ট রাবার ড্যাম সচল করতে এরই মধ্যে ২১ লাখ টাকার প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। প্রস্তাবনাটি পাস হলেই
ঠিকাদার নিয়োগের মধ্য দিয়ে কাজ শুরু হবে। আমরা চেষ্টা করছি, যত দ্রুত সম্ভব ড্যামটি সচল করতে।  

বাংলাদেশ সময়: ১২৪৯ ঘণ্টা, মার্চ ৯, ২০২৩
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।