ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ বৈশাখ ১৪৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

বিএনপি

তফসিলের পর গ্রেফতার আড়াই হাজার: রিজিভী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
তফসিলের পর গ্রেফতার আড়াই হাজার: রিজিভী

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার (৮ নভেম্বর থেকে) পর থেকে ১৫৮টি মামলা ও ২ হাজার ৪১৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়া ১০ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে বুধবার পর্যন্ত ১৫টি মামলা এবং ৪২৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বৃহস্পতিবার (১৩ ডিসেম্বর) দুপুরে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

বিভিন্ন জেলায় গ্রেফতার ও হামলা মামলার বর্ণনা দিয়ে রিজভী বলেন, বুধবার চাটখিলের জায়াগ এলাকায় মেইনরোডে ধানের শীষের পক্ষে প্রচারণা চালানোর সময় সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ ধানের শীষের সমর্থকদের ওপর হামলা চালায় আওয়ামী সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা।

চট্টগ্রামে ৩০ নং পূর্ব মাদারবাড়ি এলাকায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যআমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী গণসংযোগ করার সময় আওয়ামী ক্যাডাররাহামলা চালিয়ে ৫/৬ জন নেতাকর্মীকে আহত করে।

নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণার সময় কচুয়া উপজেলায় ধানের শীষের প্রার্থী মোশাররফ হোসেনের গাড়িবহরে হামলা করেছে আওয়ামী সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা। এতে আহত হয়েছে দলের ১০/১২ জন নেতাকর্মী।

সিরাজগঞ্জে ধানের শীষের প্রার্থী মান্নান তালুকদার নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর সময় তার ওপর আওয়ামী সন্ত্রাসীরা সশস্ত্র হামলা চালায়। কিশোরগঞ্জের মিঠামইন উপজেলা বিএনপির সভাপতি জাহিদুল আলম জাহাঙ্গীরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নওগাঁ-২ নির্বাচনী এলাকা-পত্নীতলা থানা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক সাজেদুর রহমান দুলালকে বুধবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  নওগাঁ-১ নির্বাচনী এলাকার-নওগাঁর এসপি ও সাপাহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিএনপির নেতাকর্মীর বাসায় বাসায় রাতভর তল্লাশি ও গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

কিশোরগঞ্জ-৬ আসনে কুলিয়ারচর উপজেলায় চৌমুরী বাজার এলাকায় জেলা বিএনপির সভাপতি ও বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী শরিফুল আলমের ওপর হামলা চালায় সাদা পোশাকধারী পুলিশ। এতে তিনিসহ বিএনপির ১৫/২০ জন নেতাকর্মী গুরুতর আহত হয়।

দিনাজপুরের বোঁচাগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক  শফিকুল আলম এবং পৌর বিএনপির সভাপতি নওশাদ আলীকে মিথ্যা মামলায় বারবার জামিনলাভের পরও জেলগেট থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে।

নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলায় বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী রফিকুল ইসলাম হিলালীর বাড়িতে পুলিশের মদদে ছাত্রলীগ-যুবলীগের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে আসবাবপত্র ভাঙচুরসহ ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে। আটপাড়া থানাধীন বানিয়াজান ইউনিয়ন কৃষক দলের সভাপতি শাহজাহান কবীরকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে এবং উপজেলা ছাত্রদল নেতার বাড়িতে হামলা চালিয়েছে আওয়ামী ক্যাডাররা।

জামালপুর জেলা বিএনপি নেতা নুরুল ইসলামকে হাইকোর্ট এলাকা থেকেসাদা পোশাকে ডিবি পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে, তাকে কোথাও খুঁজে পাওয়াযাচ্ছে না।

হাইকোর্টের জামিনে থাকা সত্ত্বেও টাঙ্গাইলের নাগরপাড়া থানা যুবদলের আহ্বায়ক কনির হোসেন ভূঁইয়া, যুগ্ম আহ্বায়ক কহিনুর মিয়া, দীপন মোল্লা, থানা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ফিরোজ সিদ্দিক, থানা ছাত্রদল সভাপতি নজরুল ইসলাম, থানা শ্রমিক দল সাধারণ সম্পাদক রফিজ উদ্দিন, থানা বিএনপি সদস্য হাবিবুর রহমান, তোফায়েল মোল্লা, যুবদল নেতা আবুল বাশার, বিএনপি নেতানুরু মিয়া ও বাচ্চু মিয়াসহ গত কয়েকদিনে ৬০ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৬২৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
এমএইচ/এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।