ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ চৈত্র ১৪৩০, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ০২ শাওয়াল ১৪৪৫

শিক্ষা

গুচ্ছে ফের বিশ্ববিদ্যালয় মাইগ্রেশনসহ ভর্তি শুরু

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৯, ২০২৩
গুচ্ছে ফের বিশ্ববিদ্যালয় মাইগ্রেশনসহ ভর্তি শুরু

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, (জবি): গুচ্ছ পদ্ধতিতে দেশের ২২টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক প্রথম বর্ষে শিক্ষার্থীদের ফের মাইগ্রেশনসহ ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। হাইকোর্টের আদেশের পর ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় ফের প্রাথমিক ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ভর্তি কমিটি।

গুচ্ছভুক্ত টেকনিক্যাল কমিটির সভাপতি চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নাছিম আখতার এবং ভর্তি কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক এ তথ্য জানিয়েছেন।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নাছিম আখতার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মাইগ্রেশনসহ প্রাথমিক ভর্তি প্রক্রিয়ার সপ্তম পর্যায়ের কার্যক্রম আগামীকাল মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) দুপুর ১২টা থেকে শুরু হয়ে বুধবার (১১ জানুয়ারি) রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে গুচ্ছের ওয়েবসাইটের (https://gstadmission.ac.bd) মাধ্যমে সম্পন্ন করতে হবে।

উপাচার্য আরও জানান, প্রত্যেক আবেদনকারী তার মেধা স্কোর ও বিভাগ পছন্দক্রম অনুযায়ী আবেদনকৃত প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তুত মেধাক্রম অনুসারে সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি নির্দিষ্ট বিভাগে প্রাথমিক ভর্তির জন্য মনোনীত হবে। এ পর্যায়ে যেসব আবেদনকারী প্রথমবার এক বা একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাথমিক ভর্তির জন্য নির্বাচিত হয়েছে- শুধু তাদের ভর্তির ক্ষেত্রে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অনলাইনে প্রাথমিক ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন ও প্রাথমিক ভর্তি ফি পাঁচ হাজার টাকা পরিশোধ করতে হবে। ১০ ও ১১ জানুয়ারি সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষার মূল নম্বরপত্র আবেদনকারী যে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাথমিক ভর্তি হচ্ছে সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে জমা দিতে হবে। অন্যথায় প্রাথমিক ভর্তি বাতিল হবে। মূল নম্বরপত্র দুটি আবেদনকারীর নাম ও জিএসটি রোল নম্বর লেখা একটি এ-ফোর সাইজের খামে করে জমা দিতে হবে।

আবেদনকারী একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি থাকা অবস্থায় অন্য এক বা একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য মনোনীত হলে তার পছন্দমতো অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে মাইগ্রেশন ১০ জানুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে অনলাইনে সম্পন্ন করতে পারবে। সে ক্ষেত্রে পূর্বের বিশ্ববিদ্যালয়ে আর ভর্তির জন্য বিবেচিত হবে না। সাবজেক্ট মাইগ্রেশন বন্ধ করতে চাইলে তা অবশ্যই ১০ জানুয়ারি রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে অনলাইনে সম্পন্ন করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে মাইগ্রেশন সম্পন্ন করলেও মূল কাগজপত্র যে বিশ্ববিদ্যালয়ে জমা আছে সেখানেই থাকবে। গুচ্ছভুক্ত কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিমধ্যে প্রাথমিক ভর্তি সম্পন্ন করে থাকলে পুনরায় ভর্তি হতে হবে না।

ভর্তি পদ্ধতিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য ও অনলাইনে প্রাথমিক ভর্তি সম্পন্ন করার প্রয়োজনীয় বিবরণ ওয়েবসাইটের দেওয়া আছে।

এদিকে গুচ্ছ কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ইমদাদুল হক বলেন, গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় ষষ্ঠ মেধা তালিকার পরে অধিকার বঞ্চিত সব শিক্ষার্থী তাদের নম্বর অনুযায়ী প্রাপ্য অধিকার পাবে। বিশেষ এ প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে চালু হয়েছে। প্রয়োজনে আসন বাড়িয়ে বঞ্চিতদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। সপ্তম মেরিটে শিক্ষার্থীরা ভর্তি হওয়ায় তাদের মেরিট বাতিল করা হয়নি। বঞ্চিত শিক্ষার্থীদের রেজাল্ট অনুযায়ী প্রাপ্য সাবজেক্ট বুঝিয়ে দিতে যদি কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই-চারটা আসন বাড়ানো লাগে সেই পদক্ষেপও নেওয়া হবে।

এর আগে গত ১৯ ডিসেম্বর ভর্তি কমিটির এক বিজ্ঞপ্তিতে সপ্তম মেধা তালিকা থেকে বিশ্ববিদ্যালয় মাইগ্রেশন বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়। পরবর্তী সময়ে শিক্ষার্থীরা আদালতে শরণাপন্ন হলে মাইগ্রেশন চালুসহ বঞ্চিত শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় গুচ্ছ কমিটি।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৯, ২০২৩
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।