ঢাকা, শনিবার, ৩০ চৈত্র ১৪৩০, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

ফেনীতে গাঁজা ও বিদেশি মদসহ দুই মাদক কারবারি আটক 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২, ২০২৩
ফেনীতে গাঁজা ও বিদেশি মদসহ দুই মাদক কারবারি আটক 

ফেনী: ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর মহিপালে অভিযান চালিয়ে ৪৫ কেজি গাঁজা ও ২৪ বোতল বিদেশি মদ উদ্ধারসহ দুই মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‌্যাব-৭, ফেনী ক্যাম্প।  

আটক দুজন হলেন- মো. আব্দুল মজিদ (৪২) ও মো. নাসির (৪৫)।

এসময় মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত একটি মিনি ট্রাকও জব্দ করা হয়।  

সোমবার (২ জানুয়ারি) বিকেলে র‌্যাব এ তথ্য নিশ্চিত করে।  

র‌্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা জানতে পারে যে, কয়েক মাদক কারবারি একটি মিনি ট্রাকযোগে কুমিল্লা জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য বহন করে চট্টগ্রামের দিকে নিয়ে যাচ্ছে।  

এ তথ্যের ভিত্তিতে রোববার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে র‌্যাব-৭, সিপিসি-১, ফেনী ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল ফেনী জেলার সদর মডেল থানাধীন ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী মহাসড়কের মহিপাল এলাকায় পাকা রাস্তার উপর একটি অস্থায়ী চেকপোষ্ট বসায়। একটি সন্দেহজনক মিনি ট্রাককে থামানোর সংকেত দিলে গাড়ির চালক সিগন্যাল অমান্য করে দ্রুত গতিতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে মিনি ট্রাকসহ দুজনকে আটক করতে সক্ষম হয়।  

পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সামনে আটক আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তল্লাশী করে তাদের হেফাজতে থাকা মিনি ট্রাকের পেছনে মালামাল বহন করার জায়গায় ৪টি বস্তার ভেতর থেকে মোট ৪৫ কেজি গাঁজা ও ২৪ বোতল বিদেশি মদ উদ্ধার ও আসামিদের গ্রেফতার করা হয়। মিনি ট্রাকটিও জব্দ করা হয়েছে।  

র‌্যাব জানায়, আসামি মো. আবদুল মজিদ সুনামগঞ্জ জেলার বিশ্বম্ভপুর থানার আলীপুর এলাকার মো. জাবেদ আলীর ছেলে। মো. নাসির কুমিল্লার লাঙ্গলকোট এলাকার শ্যামপুর এলাকার আবদুস সালামের ছেলে। তারা চট্টগ্রামের একটি কলোনীতে দীর্ঘদিন ধরে ভাড়া থাকতেন।  

আটক আসামিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ ড্রাইভিং পেশার আড়ালে সুকৌশলে মাদকদ্রব্য গাঁজা কুমিল্লা জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে স্বল্পমূল্যে কিনে পরবর্তীতে ফেনী, চট্টগ্রামসহ পার্শ্ববর্তী জেলার বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের কাছে অধিক মূল্যে বিক্রি করে আসছে। উদ্ধার মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য সাত লাখ টাকা।

পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য গ্রেফতার আসামি ও উদ্ধার মালামাল ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তরের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

র‌্যাব-৭ ফেনীর কোম্পানি অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লীডার মোহাম্মদ সাদেকুল ইসলাম বাংলানিউজকে তথ্য নিশ্চিত করেন।  

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০২, ২০২২
এসএইচডি/এসএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad