ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

ডিসেম্বরে খুলনায় ১৮০ মাদকবিরোধী অভিযান

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৮, ২০২৩
ডিসেম্বরে খুলনায় ১৮০ মাদকবিরোধী অভিযান

খুলনা: বিগত ডিসেম্বর মাসে জেলায় ১৮০টি মাদকবিরোধী টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সময়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের ২৪টি অভিযানে ১৩টি মামলা দায়ের ও মাদক সংক্রান্ত অপরাধের কারণে ১৩ আসামিকে কারাদণ্ডের পাশাপাশি ছয় হাজার সাতশ টাকা জরিমানা করা হয়।

 

খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির জানুয়ারি মাসের সভায় এ তথ্য জানান জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ দপ্তরের উপ-পরিচালক মো. মিজানুর রহমান।

রোববার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে খুলনা জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীনের সভাপতিত্বে তার সম্মেলনকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় তিনি বলেন, মাদকের আলামত হিসেবে এক কেজি সাতশ ৫৮ গ্রাম গাঁজা, ১৮২ ইয়াবা, ১৬০ বোতল ফেনসিডিল, পাঁচ লিটার অ্যালকোহল ও একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মাদকবিরোধী সচেতনতামূলক সভার আয়োজন করা হয়েছে।

সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানভীর আহমদ জানান, পুলিশ সপ্তাহ উপলক্ষে সারাদেশের মতো খুলনাতেও বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। খুলনার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো অবস্থানে রয়েছে। এ ধরাবাহিকতা বজায় রাখতে সবাইকে আরও দায়িত্বশীল হতে হবে। মাদক সংক্রান্ত অপরাধ, চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, অপহরণ, নারী ও শিশু নির্যাতনসহ অন্যান্য অপরাধ দমনের মাধ্যমে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পাড়া-মহল্লায় এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থানে দিন ও রাতে পুলিশি টহল বাড়ানো হয়েছে।

সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহমেদ সভায় জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে টিকা দেওয়া কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। বর্তমানে ১৮ বছর বা তদুর্ধ্ব বয়সের মানুষের পাশাপাশি ৫-১২ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়া হচ্ছে। দেশে করোনার নতুন ভেরিয়েন্ট বি-৭ শনাক্ত হয়েছে। বিদেশ থেকে যারা দেশে আসবেন তাদের বাধ্যতামূলক করোনা পরীক্ষা করতে হবে। খুলনা জেলায় করোনা টিকার প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের পাশাপাশি এ পর্যন্ত ১২ লাখ ৫৪ হাজার ব্যক্তিকে তৃতীয় ডোজের টিকাদান সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া প্রায় ১২ হাজার জনকে চতুর্থ ডোজের টিকা দেওয়া হয়েছে।  

তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে। তবে শীতের কারণে শিশুদের নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়া রোগের প্রকোপ বেড়েছে।

জেলা মহিলা বিষয়ক দপ্তরের উপ-পরিচালক হাসনা হেনা সভায় জানান, বিগত মাসে জেলার চারটি উপজেলায় পাঁচটি বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়েছে। এছাড়া বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সচেতনতা বাড়াতে ১৯টি উঠান বৈঠক করা হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, মাদকের বিস্তাররোধে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সমাজের সবাইকে কঠোর অবস্থানে থাকতে হবে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সমাজ থেকে মাদক দূর করা সম্ভব। নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে উঠান বৈঠকসহ সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।  

তিনি বলেন, সড়কে শৃঙ্খলা রক্ষায় কিশোর অপরাধ দমনে সংশ্লিদের আরও সজাগ থাকা প্রয়োজন।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মুনিম লিংকন সভায় বিগত মাসে খুলনা জেলা ও মহানগরীর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলে ধরেন। খুলনা জেলা অধিক্ষেত্রে বিগত ডিসেম্বর মাসে ১৪৯টি মামলা দায়ের হয়েছে, যা বিগত নভেম্বর মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে চারটি বেশি। খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্রে ডিসেম্বর মাসে ১৪৯টি মামলা দায়ের হয়েছে, যা বিগত নভেম্বর মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে ২৪টি বেশি।

সভায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাসহ কমিটির সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৮, ২০২২
এমআরএম/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।