ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

চার বছর পালিয়েও শেষ রক্ষা হলো না!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০২৩
চার বছর পালিয়েও শেষ রক্ষা হলো না!

ফেনী: তিন লাখ টাকার চেক প্রতারণার মামলায় পাঁচ মাসের সাজা পেয়েছিলেন শেখ ফারুক (৫০)। সাজা এড়াতে ৪ বছর তিনি পালিয়ে ছিলেন দুবাইতে।

 

অবশেষে মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) রাতে সোনাগাজী পৌরসভার চর গণেশ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ফেনীর আদালতে করা ওই মামলায় বুধবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেফতার শেখ ফারুক সোনাগাজী পৌরসভার চর গণেশ এলাকার শেখ জামশেদ আলমের ছেলে।  

পুলিশ সূত্র জানায়, ২০১৮ সালে শেখ ফারুকের বিরুদ্ধে তিন লাখ টাকা আত্মসাৎ ও চেক প্রতারণার অভিযোগে ফেনীর আদালতে একটি মামলা করা হয়। ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায় পুলিশ। পরে তিনি জামিনে বের হয়ে আত্মগোপনে চলে যান।

এরপর তিনি আর আদালতে হাজির হননি। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত শেখ ফারুককে পাঁচ মাসের কারাদণ্ড ও তিন লাখ টাকা অর্থদণ্ড দেন। তার বিরুদ্ধে চেক প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে একাধিক মামলা আদালতে বিচারাধীন।  

ফেনীর আদালত থেকে গ্রেফতারি পরোয়ানা পাওয়ার পর শেখ ফারুকের খোঁজে মাঠে নামে পুলিশ। কিন্তু তিনি বিদেশে থাকায় তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। গত ১০-১৫ দিন আগে তিনি বিদেশ থেকে দেশে আসেন। তাকে ধরতে পুলিশ ছদ্মবেশে তার গ্রামের বাড়ি ও সম্ভাব্য স্থানে গিয়ে খোঁজখবর নেয়। তার মোবাইল নম্বর ও ছবি সংগ্রহ করে সেই নম্বরের সূত্র ধরে পৌরসভার চর গণেশ এলাকার একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

সোনাগাজী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খালেদ হোসেন দাইয়ান বলেন, আদালতের মাধ্যমে ফারুককে ফেনী কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০২৩
এসএইচডি/এনএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।